২০২৪ এর লোকসভা ভোটে বিজেপির দখলে ক’টা আসন যাবে তা এখনই বলে দিলেন দেবাংশু

২০২৪ এর লোকসভা ভোটে বিজেপির দখলে ক’টা আসন যাবে তা এখনই বলে দিলেন দেবাংশু

নিজস্ব প্রতিবেদন: দেবাংশু ভট্টাচার্য। বর্তমান তৃণমূলের এই তরুণ মুখপাত্র একদিকে যেমন ক্ষুরধার বক্তব্যের মাধ্যমে প্রতিপক্ষের মুখ বন্ধ করে দিতে সিদ্ধহস্ত তেমনি অনেক সময় বিভিন্ন বেফাঁস মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়ে যান তিনি। প্রায়শ‌ই তাঁকে দেখা যায় বিভিন্ন খবরের চ্যানেল আয়োজিত বিতর্কে অংশগ্রহণ করতে। বেশিরভাগ সময়ই তাকে বুদ্ধিদীপ্ত কথা বলতে শোনা যায়।

যেকোনো জনসভা থেকে শুরু করে টিভি চ্যানেলে প্রায়শ‌ই বিজেপিকে এবং পশ্চিমবঙ্গের বিরোধী দলগুলোকে বিঁধে থাকেন দেবাংশু ভট্টাচার্য। একুশের বিধানসভা ভোটে তাকে টিকিট দেয়নি তৃণমূল। যার জন্য তীব্র ট্রোলের মুখে পড়তে হয়েছিল দেবাংশুকে। কিন্তু তখন দেবাংশু মন্তব্য করেছিলেন যে, “জননেত্রী হয়তো আমার জন্য আগামী দিনে কিছু ভালো পরিকল্পনা করে রেখেছেন ।

আরও পড়ুন-“অনেকেই পরিস্থিতির চাপে মুখ ঘুরিয়ে নিয়েছেন।”- রাজীব প্রসঙ্গে মন্তব্য দিলীপ ঘোষের

উনার এই পরিকল্পনাকে আমি সম্মান জানাই।”একুশের ভোটে তিনিও বিভিন্ন জায়গায় জনসভা, রোড শো তে অংশগ্রহণ করেছেন। তার বুদ্ধিদীপ্ত কথাবার্তায় মোহিত হয়ে গিয়েছে তরুণ সমাজ। তৃণমূল তাকে তরুণ সমাজের মুখ হিসেবে উপস্থাপিত করছেন।

একুশের ভোটের প্রচারে বাংলার মানুষের জনসমর্থন তৃণমূলের ঝুলিতে টানার জন্য তাঁর যথেষ্ট উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে।আগামী ২০২৪ এর লোকসভা ভোটে দিল্লির সিংহাসনের দিকে লক্ষ্য দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। সেই লক্ষ্যে এবার নিজেদের রণকৌশল সাজাচ্ছে তৃণমূল। এই পরিস্থিতিতে আগামী ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচন নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন দেবাংশু ভট্টাচার্য।

আরও পড়ুন-“একমাত্র মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়‌ই প্রধানমন্ত্রীকে আটকানোর ক্ষমতা রাখেন।”- মুখ্যমন্ত্রীর স্তুতি অধীর চৌধুরীর।

তৃণমূলের এই যুবনেতা গতকাল রবিবার বারাসাতে একটি জনসভায় গিয়ে বলেছেন,”বর্তমানে বিজেপির মুখপাত্র হিসেবে রাজ্যপাল কাজ করছেন। তিনি হঠাৎ দিল্লি চলে গেলেন। ‌ যেখানে রাজ্যপালের কাজ নিরপেক্ষভাবে বাংলায় কাজ করা সেখানে তিনি বিজেপির মুখপাত্র হয়ে কাজ করছেন। আমি উনার নাম নেবো না।

আরও পড়ুন-মুকুলের পরামর্শ অনুযায়ী উত্তরবঙ্গে সংগঠন মজবুত করতে রণনীতি সাজাচ্ছে তৃণমূল

যখন‌ই উনার নাম নিই আমার দিন খারাপ যায়। বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন কায়েম করার জন্য উনি উঠে পড়ে লেগেছেন। যদি ওনার সত্তিকারের বুকের পাটা থাকে তাহলে বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করে দেখান। আগামী ২০২৪ এর লোকসভা ভোটে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাঁড়ালে প্রধানমন্ত্রী যে আর লালকেল্লায় ভাষণ দিতে পারবেন না তা তিনি বিলক্ষণ টের পেয়েছেন।

আমি হলফ করে বলছি এই বাংলায় বিজেপি পাঁচটির বেশী আসন পাবে না।”