অক্সিজেনের অভাবে করোনা রোগীর মৃত্যু বেলেঘাটা আইডিতে। অধ্যক্ষা বললেন চিকিৎসায় গাফিলতি ছিলো না।

অক্সিজেনের অভাবে করোনা রোগীর মৃত্যু বেলেঘাটা আইডিতে। অধ্যক্ষা বললেন চিকিৎসায় গাফিলতি ছিলো না।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সারা বাংলা তথা ভারতের বুকে সন্ত্রাসের কালো রাজত্ব চালাচ্ছে করোনা ভাইরাস। রীতিমতো দেশজুড়ে মৃত্যুর তান্ডব চালাচ্ছে এই ভাইরাস। আসন্ন বিপদের আশঙ্কায় ভয়ে তটস্থ দেশবাসী। দেশজুড়ে এখনো পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৫৬ লক্ষ ৯ হাজার ৪ জন। মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েছেন ১ লক্ষ ৮২ হাজার ৫৭০ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ কোটি ৩২ লক্ষ ৬৯ হাজার ৮৬৩ জন।

সারা দেশের মধ্যে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে এই করোনাভাইরাস। পশ্চিমবঙ্গের বুকেও ভয়াবহ সন্ত্রাস চালাচ্ছে করোনা ভাইরাস। এখনো পর্যন্ত এই ভাইরাসের কবলে পড়েছেন ৬ লক্ষ ৭৮ হাজার ১৭২ জন। এই ভাইরাস প্রাণ নিয়েছে ১০ হাজার ৬৫২ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৬ লক্ষ ৯ হাজার ১৩৪ জন। এর‌ই মধ্যে রাজ্যে দেখা দিয়েছে অক্সিজেনের অভাব। পর্যাপ্ত অক্সিজেন এবং ভ্যাকসিন চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এরইমধ্যে বেলেঘাটা আইডি তে বিনা চিকিৎসায় এক করোনা রোগীর মৃত্যুর অভিযোগকে কেন্দ্র করে যথেষ্ট চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ‌ মৃত করোনা রোগীর নাম ইলা সরকার। তাঁর বয়স ৭৭ বছর। তার বাড়ির লোক অভিযোগ করেছেন যে গত ১৫ ই এপ্রিল বেলেঘাটা আইডি তে ভর্তি হয়েছিলেন ওই মহিলা। তখন তাকে আইসিইউতে ভর্তি করা হয়, কিন্তু তারপরে কাউকে কিছু না জানিয়ে ইলা দেবী কে জেনারেল বেডে পাঠিয়ে যায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ‌

আরও পড়ুন-অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলেন তৃণমূল নেতা মদন মিত্র।

জেনারেল বেডে পাঠানোর পর ২৪ ঘন্টার মধ্যেই মারা যান ইলা দেবী। তার পরিবার অভিযোগ করেছে যে পর্যাপ্ত অক্সিজেনের অভাবে ইলাদেবীর মৃত্যু ঘটেছে। বেলেঘাটা আইডি তে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন মৃত মহিলার বাড়ির সদস্যরা। কিন্তু এই প্রসঙ্গে বেলেঘাটা আইডির অধ্যক্ষা দাবি করেছেন যে, বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুর অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন।

অক্সিজেনের পর্যাপ্ত যোগান ছিল, বিনা চিকিৎসায় ওনার মৃত্যু হয়নি।জলপাইগুড়ির এক বাসিন্দা ৫৩ বছর বয়সী রঞ্জন মিত্রের মৃত্যু ঘটেছে বিনা চিকিৎসায় এমনটাই অভিযোগ করেছে তাঁর পরিবার। তাঁর পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন যে তিনটি হাসপাতাল ঘুরেও জায়গা পাননি রঞ্জন বাবু, পর্যাপ্ত অক্সিজেন না মেলায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি।