নিউজটেক নিউজদেশস্বাস্থ্য

জাল ভ্যাকসিনের কারবার ছড়িয়ে পড়েছে মুম্বাইয়েও। হাতেনাতে গ্রেফতার দুই ডাক্তার সহ মোট ১০ জন।

নিজস্ব প্রতিবেদন: কসবার ভুয়ো ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পের ঘটনায় সারা রাজ্যে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু শুধুমাত্র বাংলাতেই নয়, এক এক করে ভারতের বেশ কিছু জায়গা থেকে উঠে আসছে এরকমই ভুয়ো ভ্যাকসিনের নানান ঘটনা। দুটো পয়সার জন্য মানুষ যে কতটা নীচ মানসিকতা প্রদর্শন করতে পারে তা কল্পনার‌ও অতীত। শুধুমাত্র টাকার জন্য মানুষের জীবন নিয়ে খেলতে এই মানুষরূপী পিশাচদের হাত কাঁপে না।

জানা গিয়েছে মুম্বইয়ে ভুয়ো ভ্যাকসিনেশনের কবলে পড়েছেন অন্ততঃ ২ হাজার জন। গত বৃহস্পতিবার বম্বে হাইকোর্টে এই সত্য উপস্থাপিত হয়েছে।মুম্বই পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে যে এখনো পর্যন্ত এই ভুয়ো ভ্যাকসিন কান্ডে মোট ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মুম্বইয়ের একটি বেসরকারী হাসপাতাল শিবম হাসপাতালের কর্ণধার শিবরাজ পাটারিয়া এবং তার স্ত্রী নীতাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।

আরও পড়ুন-“ভারতীয় নৌ সেনা সর্বদাই যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত”- চিনকে হুঁশিয়ারি প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের

তারা দুজনেই চিকিৎসক। জানা গিয়েছে তাঁরা হাসপাতাল থেকে মোট ৩৮ টি ভ্যাকসিনের ভায়াল একটি ভুয়ো ভ্যাকসিন চক্রের হাতে তুলে দিয়েছিলো। ভ্যাকসিনের খালি ভায়াল জোগাড় করার পর ভুয়ো টীকাকরণে এই খালি ভায়াল গুলির ব্যবহার করা হত। এই জাল ভ্যাকসিন চক্রটি মুম্বাইয়ের কান্দাভালি অঞ্চলে একটি হাউসিং এরিয়ার মধ্যে এই ভুয়ো ভ্যাকসিন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছিলো।

আরও পড়ুন-“গরীব দেশগুলোর কাছে অবিলম্বে টীকা পাঠান”- উন্নত দেশগুলোর কাছে আবেদন করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ওই জাল ভ্যাক্সিনেশন ক্যাম্প থেকে মোট ৩৯০ জন টীকা নিয়েছিলেন টীকা পিছু ১২৬০ টাকা খরচ করে। মোট সাড়ে চার লাখ টাকা জালিয়াতি করে হাতিয়ে নিয়েছিলো এই অসাধু মানুষজন। তার মধ্যে মোট ১২০ জনকে দেওয়া হয়েছিল সার্টিফিকেট। কিন্তু এই সার্টিফিকেটে বিভিন্ন হাসপাতালের নাম থাকায় অনেকেই সন্দেহ করেছিলেন এই ভ্যাক্সিনেশন ক্যাম্প টিকে।

তারপরেই পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন ডোমজুড়ের অনেকেই। মুম্বই পুলিশ তদন্ত শুরু করে মোট ১০ জনকে এই ঘটনায় গ্রেফতার করেছে। তাদের কাছ থেকে মোট ১২ লক্ষ টাকারও বেশী বাজেয়াপ্ত করেছে মুম্বাই পুলিশ।

Related Articles

Back to top button