নিউজভাইরাল & ভিডিও

করোনা আক্রান্ত মা। একটাই অক্সিজেন সিলিন্ডার জোগাড় করেছিলেন ছেলে। বাজেয়াপ্ত করে নিয়ে গেল পুলিশ। ভাইরাল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাতাসে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে অসহায় মানুষের করুণ আর্তনাদ। প্রতিটি মুহূর্তে মৃত্যুভয় ঘিরে ধরেছে মানুষকে। এক মুহূর্তে স্বাভাবিক চিত্রটা পাল্টে দেশে আবার ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে করোনা ভাইরাস। এই ভাইরাসের শিকার হয়ে বহু মানুষের প্রাণ গিয়েছে। কত মা তাঁর ছেলেকে, কত সন্তান তার বাবা মাকে হারিয়ে সহায় সম্বলহীন হয়ে পড়েছে। চারিদিকে শুধু মাত্র ধ্বনিত হচ্ছে মানুষের হাহাকার।

ভারতের বহু জায়গায় হাসপাতালগুলিতে অক্সিজেনের ঘাটতি নেমে এসেছে। ছোটাছুটি করে রীতিমতো হন্যে হয়ে ঘুরেও অক্সিজেন পাচ্ছেন না করোনা রোগীরা। ভারতে বিভিন্ন রাজ্যে অক্সিজেনের ঘাটতি ব্যাপক ভাবে উপস্থাপিত হয়েছে জনসমক্ষে। ইতিমধ্যেই অক্সিজেনের অভাবে প্রাণ দিয়েছে বেশ কয়েকজন মানুষের। এই আবহে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায় যা দেখে ক্ষোভে ফুঁসছেন নেটাগরিকরা। এই ভিডিওটি যদিও সঠিক কি ভ্রান্ত ধারণা বিশিষ্ট তা এখনো জানা যায়নি , তবে ভিডিওটিতে এক ব্যক্তির কাতর আবেদন অনেকের চোখেই জল এনে দিয়েছে।ভিডিওটি আগ্রার একটি সরকারি হাসপাতালে তোলা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে যাচ্ছে পুলিশের লোকজন। আর এক ব্যক্তি পুলিশের কাছে হাতজোড় করে রাস্তায় মাথা ঠুকে নিবেদন করছেন অক্সিজেনের জন্য। সোশ্যাল মিডিয়া মারফত জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তি তার করোনা আক্রান্ত মুমূর্ষ মায়ের চিকিৎসার জন্য একটিই মাত্র অক্সিজেন সিলিন্ডার জোগাড় করেছিলেন। কিন্তু সেটি বাজেয়াপ্ত করে নিয়ে যায় পুলিশ। তখনই ওই ব্যাক্তি কাতর স্বরে পুলিশের হাতে পায়ে ধরে নিবেদন করতে থাকেন যে ওই সিলিন্ডার তাকে ফিরিয়ে দেওয়া হোক। কিন্তু অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে চলে যায় পুলিশ।

এই ভিডিওটি দেখে যথেষ্ট ক্ষুব্ধ হয়েছেন নেটিজেনরা। সকলেই উত্তরপ্রদেশ পুলিশের যথেষ্ট সমালোচনা করেছেন । কিন্তু অন্য আরেকটি ভিডিও প্রকাশ করে আগ্রা পুলিশ জানিয়েছে যে , এই ঘটনাটিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় সম্পূর্ণ অন্য ভাবে উপস্থাপিত করা হচ্ছে। ‌যে সিলিন্ডারটি নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল সেটি খালি সিলিন্ডার। ওই ব্যক্তি তার মায়ের জন্য অক্সিজেনের জোগাড় না করতে পেরে পুলিশের কাছে হাতজোড় করে অনুরোধ জানাচ্ছিলেন অক্সিজেনের জোগাড় করে দেওয়ার জন্য।

Related Articles

Back to top button