নিউজ

করোনা প্রাণ কাড়লো বাংলার অন্যতম দুই দক্ষ চিকিৎসকের

নিজস্ব প্রতিবেদন: ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতি বিরাজ করছে এ দেশের বুকে। বিভিন্ন রাজ্যে দেখা দিয়েছে অক্সিজেনের চরম সংকট। এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে নিরন্তর মৃত্যুভয় কে সঙ্গী করে দিনযাপন করছেন দেশের মানুষ জন। সকলেই মৃত্যু ভয়ে তটস্থ। সকলেই প্রতিমুহূর্তে আতঙ্কে রয়েছেন যে এই হয়তো দরজায় কড়া নাড়লো মৃত্যু। প্রতিটি দেশবাসীকে অত্যন্ত সতর্ক থাকতে বলছে প্রশাসন। সকলকে বলা হচ্ছে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখতে এবং অবশ্যই মাস্ক পরিধান করতে।

এখনো পর্যন্ত সারা দেশবাসীর মধ্যে ভ্যাকসিন পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হয়নি। সকলকেই অত্যন্ত সতর্কতার সাথে কোভিড বিধি মেনে চলতে বলা হচ্ছে। এই দুর্দিনে মানুষের কাছে ভগবান হয়ে উঠেছেন তারাই যারা নিরন্তর নিজেদের জীবন বাজি রেখে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। তারা হলেন ডাক্তার এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীরা। বিশেষ করে ডাক্তার এবং নার্সরা নিরন্তর অসহ্য গরম উপেক্ষা করে পিপিই কিট পরে দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই করে চলেছেন করোনার বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন-ভারতে এসে গেল রাশিয়ার তৈরি স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিন। ‘কার্যকারিতা ৯৫%’ , দাবি সংস্থার

অনেক চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা নিজেদের প্রাণ উৎসর্গ করেছেন করোনা রোগীদের সেবায়। দেশের মানুষ তাদেরকে সশ্রদ্ধ প্রণাম জানায়। ডাক্তাররাই আজ মানুষের কাছে ভগবান স্বরূপ। কিন্তু তাঁরাও মৃত্যুর গ্রাসে পড়ছেন রোগীদের সেবা করতে গিয়ে। বাংলার অন্যতম স্বনামধন্য দুই চিকিৎসকের মৃত্যু ঘটেছে এই ভাইরাসের প্রকোপে পড়ে।সল্টলেকের আমরি হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ জি এস ভট্টাচার্যের।

অপরদিকে আসানসোল জেলা হাসপাতালে ক্রিটিক্যাল কেয়ার ইউনিটের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক অলোক মুখোপাধ্যায় প্রাণ হারিয়েছেন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে। দুই চিকিৎসকের মৃত্যুতে যথেষ্ট শোকপ্রকাশ করেছেন তামাম বাংলার মানুষজন। সল্টলেকের আমরিতে ভেন্টিলেশনে গত ৫ দিন ধরে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করছিলেন জি এস ভট্টাচার্য। গতকাল গভীর রাতে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। এদিকে অলোক মুখোপাধ্যায় আজকেই ভোরবেলা প্রয়াত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। দুই স্বনামধন্য চিকিৎসকের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

Related Articles

Back to top button