নিউজটেক নিউজরাজ্য

মুখ্যমন্ত্রীর ফোন ! বাংলার বন্যা পরিস্থিতিতে মৃত এবং আহতদের আর্থিক সাহায্য প্রধানমন্ত্রীর।

নিজস্ব প্রতিবেদন: ভয়াবহ বন্যার সম্মুখীন হয়েছে হাওড়ার উদয়নারায়ণপুর, আমতা, হুগলির ঘাটাল, খানাকুল। মুখ্যমন্ত্রী গতকাল হাওড়ার বন্যা বিধ্বস্ত অঞ্চল পরিদর্শনে গিয়েছিলেন। তিনি আমতা থেকে সরাসরি ডিভিসিকে যথেষ্ট দোষারোপ করেছেন। তিনি বলেছেন,”বৃষ্টির দরুন এই বন্যা হয়নি।

এটা হল ম্যান মেড বন্যা। ডিভিসি নিজের ইচ্ছামতো জল ছাড়ছে যখন তখন। আমাদের না জানিয়ে জল ছেড়েছে, যার ফলে এতগুলো মানুষ দুরবস্থার মধ্যে পড়েছে। একটা খাল‌ও ডিভিসি সংস্কার করেনি।

আরও পড়ুন-“পশ্চিমবঙ্গের বন্যা ম্যান মেড”- ডিভিসির জল ছাড়া নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে কড়া চিঠি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

যার জন্যেই এই বন্যা। আজ আমি খানাকুলেও যাবো ভেবেছিলাম। কিন্তু প্রতিকূল আবহাওয়ার দরুণ যেতে পারিনি।”জানা গিয়েছে বাংলার বন্যা পরিস্থিতির সমস্ত খোঁজখবর নিতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

এই আবহের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই চিঠিতে তিনি লিখেছেন,”মাইথন, তেনুঘাট ব্যারেজ, এবং পাঞ্চেত ব্যারেজ থেকে ব্যাপক পরিমাণে জল ছাড়া হয়েছে। সেখান থেকে এর মধ্যেই ২ লাখ কিউসেক জল ছাড়া হয়েছে । যার ফলে এই ম্যান মেড বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে ।

আরও পড়ুন-ঘাটালে গিয়ে খালি পায়েই কাদায় নেমে গ্রামবাসীদের সাথে কথা বললেন সাংসদ দেব

হাওড়া, হুগলি, বীরভূম এবং পূর্ব বর্ধমানের অনেকটাই অংশ প্লাবিত হয়েছে। ইতিমধ্যেই হাজার হাজার বিঘা চাষের জমি জলের তলায় চলে গিয়েছে। ‌ ডিভিসি প্রতিবছর পরিকল্পনাহীন জল ছেড়ে রাজ্যে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি করে চলেছে। ‌ বহুদিন ধরে ডিভিসি খালগুলোর কোনো সংস্কার করেনি।

তাই সামান্য জল ছাড়লেই রাজ্যে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়ে যাচ্ছে। এখনো পর্যন্ত রাজ্যে বন্যা পরিস্থিতিতে ২৩ জন মারা গিয়েছেন। রাজ্যে মোট ৩৬১ টি ত্রাণশিবির খোলা হয়েছে।”এরপরেই প্রধানমন্ত্রী গতকাল সন্ধ্যায় বাংলায় বন্যা পরিস্থিতির ফলে মৃত ব্যক্তিদের পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্য দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

আরও পড়ুন-আগামী ১ লা সেপ্টেম্বর থেকেই লক্ষীর ভান্ডারের অর্থ পাওয়া যাবে। জানুন বিস্তারিত

সেই সাথে তিনি ঘোষনা করেছেন যে বন্যা বিধ্বস্ত এলাকাগুলিতে আহত ব্যক্তিদের ৫০ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। ‌জানা গিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয় টুইট করে জানিয়েছে, “প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ত্রাণ তহবিল থেকে পশ্চিমবঙ্গে বন্যার ফলে মৃত ব্যক্তিদের পরিবারকে দেওয়া হবে ২ লক্ষ টাকা। এবং সেইসাথে আহতদের দেওয়া হবে ৫০ হাজার টাকা।”

Related Articles

Back to top button