নিউজপলিটিক্স

রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষকে নবান্নে চায়ের আমন্ত্রণ জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

নিজস্ব প্রতিবেদন: আজ তৃণমূলের খেলা হবে দিবসের সূত্রপাত হয়ে গিয়েছে রাজ্য জুড়ে। রাজ্যের বাইরেও এই খেলা হবে দিবস কর্মসূচি পালনে তৎপর হয়ে রয়েছে তৃণমূল নেতৃত্ব। এদিকে খেলা হবে দিবসের দিন পরিবর্তন করার দাবিতে অনেক আগে থেকেই সোচ্চার ছিল বিজেপি। আজ খেলা হবে দিবসের দিন কলকাতার ইকোপার্ক এর পার্কিংয়ের মাঠে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে ফুটবল খেলেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

এই আবহের মধ্যেই দিলীপ ঘোষকে নবান্নের চায়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে তৃণমূল নেত্রী জানিয়েছেন যে তিনি সম্পূর্ণ সৌজন্যমূলক উদ্দেশ্যে চা-চক্রে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন দিলীপ ঘোষকে। গতকাল স্বাধীনতা দিবসের দিন চা-চক্রে রাজভবনে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি নেতা তথাগত রায়, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী এবং রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

আরও পড়ুন –আজ থেকেই খুলে দেওয়া হচ্ছে পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের দরজা।

জানা গিয়েছে তথাগত বাবু এবং দিলীপ ঘোষের সাথে সৌজন্য বিনিময় করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে শুভেন্দু অধিকারী এবং মুখ্যমন্ত্রীর মধ্যে কোন রকম কথাবার্তা হয়নি বলে জানা গিয়েছে। দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন, “মুখ্যমন্ত্রী প্রথমে আমাকে সম্মোধন করে ডেকেছিলেন তারপর আমাদের মধ্যে নিয়মিত শরীরচর্চা বিভিন্ন খাওয়া-দাওয়া সম্পর্কে কথা-বার্তা হয়েছিল। ‌

উনি আমাকে নবান্নে চা চক্রে যোগদান করার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন । এছাড়াও উনার বাড়ির কালীপুজো আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। উনার সাথে সৌজন্যমূলক সাক্ষাতের জন্যই তিনি আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।” কয়েক বছর আগে নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে চা-চক্রে যোগদান করেছিলেন বামফ্রন্টের নেতা বিমান বসু, সূর্যকান্ত মিশ্র প্রমুখেরা ।

ওই সময় বাম নেতাদের নবান্নে চা-চক্রে যোগদান ঘিরে যথেষ্ট জল্পনা সৃষ্টি হয়েছিল। এবার কার্যত দিলীপ ঘোষকে নবান্নে চা-চক্রের আমন্ত্রণকে ঘিরে যথেষ্ট জল্পনার উদ্রেক হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে। কিন্তু তৃণমূল প্রথম থেকেই বলে আসছে যে সম্পূর্ণ সৌজন্যমূলক সাক্ষাতের উদ্দেশ্যে বিজেপি রাজ্য সভাপতিকে আমন্ত্রণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Related Articles

Back to top button