নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“বিজেপি শাসিত রাজ্য গুলি বেশি টিকা পাচ্ছে।”- প্রধানমন্ত্রীকে অভিযোগ জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদন: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রথম থেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে অভিযোগ জানিয়ে এসেছেন যে বাংলায় যথেষ্ট পরিমাণে টিকা দেওয়া হচ্ছে না, যার জন্য বাংলায় করোনার ভ্যাকসিন দেওয়ায় যথেষ্ট ঘাটতি দেখা গিয়েছে ।এই আবহে আবার ভ্যাকসিনের অপ্রতুলতা প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি এই চিঠিতে লিখেছেন,”বিজেপি শাসিত রাজ্য গুলিতে বেশী টিকা পাঠানো হচ্ছে। সেই তুলনায় পশ্চিমবঙ্গের মাটিতে যথেষ্ট কম পরিমাণে টিকা পাঠানো হচ্ছে।

আমরা বর্তমানে ৪ লক্ষ করে ভ্যাকসিন দিচ্ছি, কিন্তু যথেষ্ট পরিমাণে টীকা এলে আমরা ১১ লক্ষ ভ্যাকসিন প্রতিদিন দিতে পারবো। পশ্চিমবঙ্গের জনসংখ্যা যথেষ্ট বেশি তা সত্ত্বেও আমাদের কম পরিমাণে টিকা দেওয়া হচ্ছে।আমি এই বিষয়টি দেখে খুবই ব্যথিত হয়েছি যে, বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলি তে বেশি করে টীকা পাঠানো হয়েছে। যেমন, গুজরাট, কর্ণাটক, উত্তরপ্রদেশে যথেষ্ট পরিমাণে টিকা পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন-“ত্রিপুরায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে”- বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করল তৃণমূল।

সেই তুলনায় পশ্চিমবঙ্গে যথেষ্ট পরিমাণে টিকা পাঠানো হচ্ছে না। ওই রাজ্যগুলিতে যথেষ্ট পরিমাণে টাকা পাঠানো হোক তাতে কোনো আপত্তি নেই কিন্তু সে ক্ষেত্রে যদি পশ্চিমবঙ্গে টিকা পাঠানো না হয় তাহলে বাংলা কখনোই চুপ করে থাকবে না। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় অবিলম্বে বাংলার মানুষগুলিকে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা উচিত তবেই তৃতীয় ঢেউ আটকানো যাবে।

আরও পড়ুন-কেন্দ্রীয় মন্ত্রীত্ব যাওয়ার কারণ জানিয়ে দিলীপ ঘোষকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বাবুল সুপ্রিয়

কিন্তু সেই ব্যবস্থা কিছুতেই গ্রহণ করতে চাইছেনা কেন্দ্রীয় সরকার যার দরুন প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ বাংলার বুকে আক্রান্ত হচ্ছেন এই মারণ ভাইরাসে। রাজ্যে মোট ১৪ কোটি টিকার প্রয়োজন । কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার বাংলাকে মোট ২.৬৮ কোটি ডোজ দিয়েছে।”

Related Articles

Back to top button