শীতলকুচির ঘটনাপ্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে আক্রমণ শানালেন বিজেপি নেতা জে পি নাড্ডা

শীতলকুচির ঘটনাপ্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে আক্রমণ শানালেন বিজেপি নেতা জে পি নাড্ডা

নিজস্ব প্রতিবেদন: কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের ঘেরাও করে আক্রমণ করার অভিযোগে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা গুলি চালিয়েছে যার দরুন প্রাণ গিয়েছে ৪ তৃণমূল সমর্থকের। এই ঘটনায় গত সোমবার সারা রাজ্য জুড়ে কালা দিবস পালন করেছে তৃণমূল। ‌ মুখ্যমন্ত্রীকে নির্বাচন কমিশন অনুমতি দেয়নি কোচবিহারে নিহতদের বাড়িতে যাওয়ার জন্য। ভিডিও কলে নিহত তৃণমূল সমর্থক দের পরিবারের সাথে কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

‌ তিনি আশ্বাস দিয়েছেন নিহত তৃণমূল সমর্থক দের পরিবারের পাশে তিনি থাকবেন । ওদিকে ওই বুথেই গুলি করে হত্যা করা হয়েছে আনন্দ বর্মনকে। এই হত্যার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। আজ শীতলকুচিতে নিহত ব্যক্তিদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। মাথাভাঙ্গা হাসপাতালে পাশেই তৈরি হয়েছে একটি শহীদ মঞ্চ, সেখানেই মৃতদের উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধাঞ্জলি দেবেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন-“রাজনীতির সাথে কিছুতেই খাপ খাওয়াতে পারছি না।”- প্রার্থী না হওয়ার প্রসঙ্গে মন্তব্য করলেন অভিনেতা তথা তৃণমূল সাংসদ দেব

কিন্তু বিজেপি কর্মী আনন্দ বর্মনের পরিবার স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে তারা মুখ্যমন্ত্রীর কোন রকম সাহায্য গ্রহণ করবে না।এদিকে শীতলকুচি ঘটনা প্রসঙ্গ কে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে একহাত নিয়েছেন বিজেপি নেতা জে পি নাড্ডা। নাড্ডা আজ বাগনানে রোড শো করবেন এবং জামালপুর ও মঙ্গলকোটে একটি জনসভা করবেন। রাজারহাটের জনসভায় নাড্ডা বলেছেন, “শীতলকুচি তে আমাদের কর্মী আনন্দ বর্মনকে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা খুন করেছে। কিন্তু সে সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করেননি মুখ্যমন্ত্রী। আনন্দ বর্মন রাজবংশী সম্প্রদায়ের অন্তর্ভুক্ত, তাই মুখ্যমন্ত্রী এই বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেননি। ‌ দলিত বিরোধী হলেন মুখ্যমন্ত্রী।”