নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“বিজেপি শয়তানের দল”- আহত ছাত্রনেতা সুদীপ রাহাকে হাসপাতালে দেখে এসে বললেন অনুব্রত মণ্ডল

নিজস্ব প্রতিবেদন: এখন রাজ্য রাজনীতিতে একটাই নাম , ‘ত্রিপুরা।’ এই ত্রিপুরার মাটিতে আগামী ২০২৩ এর বিধানসভা ভোটে নিজেদের গড় প্রতিষ্ঠা করতে উদ্‌গ্রীব হয়েছে তৃণমূল। কিন্তু ত্রিপুরার মাটিতে তাদের লড়াইয়ে প্রথম থেকেই কাঁটা বিছানো রাস্তার দেখা মিলেছে।ত্রিপুরার মাটিতে বিজেপি কর্মীদের দ্বারা আক্রান্ত হয়েছিলেন তৃণমূলের ছাত্রনেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহা, জয়া দত্ত সহ অনেকেই।

এরপরে বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন দেবাংশুরা।ত্রিপুরা পুলিশ গ্রেফতার করেছিলো দেবাংশু দের। পুলিশ অভিযোগ করেছিল যে দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহা, জয়া দত্ত, তৃণমূল কর্মীদের নিয়ে বিধিনিষেধ আইন লঙ্ঘন করেছে। খোয়াই থানায় পুলিশ আধিকারিক দের সাথে তীব্র বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েছিলেন তৃণমূল নেতারা।

আরও পড়ুন-অনুব্রত মন্ডলের গড় বীরভূম আবার ভাঙন বিজেপিতে।

পুলিশ আধিকারিক দের সাথে তীব্র বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েন ব্রাত্য বসু, কুনাল ঘোষ, এবং দোলা সেনরা । এরপরেই জামিন পান দেবাংশুরা। কলকাতায় ফিরেছেন তারা। দেবাংশুর তেমন আঘাত না লাগলেও সুদীপ রাহা, জয়া দত্ত আহত হয়েছেন।

কলকাতার এস‌এসকেএমে ভর্তি হয়েছেন সুদীপ রাহা, জয়া দত্ত।গতকাল সুদীপ রাহাকে দেখতে এস‌এসকেএমে গিয়েছিলেন বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। গতকাল উডবার্ন ওয়ার্ডে গিয়ে সুদীপের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন অনুব্রত মণ্ডল। এরপরেই তিনি হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে বলেছেন,”আমি দলের এক বিশ্বস্ত সৈনিক।

আরও পড়ুন-প্রচারে কন্যাশ্রীকে লেখা হল ‘কন্নাশ্রী’ । যথেষ্ট অস্বস্তির মধ্যে পড়লেন দিলীপ ঘোষ

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাকে যে নির্দেশ দেবেন আমি সেটাই পালন করবো। বাংলায় ভোটের সময় বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা মন্ত্রীরা বারবার যাতায়াত করেছিলেন , তখন তাদের উপর কোনো তৃণমূল কর্মীরা আক্রমণ করেনি। বিজেপি হল একটা শয়তান দল। বিজেপিকে ত্রিপুরায় তৃণমূলের কর্মীদের উপরে হামলায় জবাবদিহি করতেই হবে।”

Related Articles

Back to top button