“বিজেপি গুলি করে ভোটের লাইনে লোক মেরে দিয়ে বলছে যা করেছি ঠিক করেছি”- জনসভা থেকে বিজেপি কে আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

“বিজেপি গুলি করে ভোটের লাইনে লোক মেরে দিয়ে বলছে যা করেছি ঠিক করেছি”- জনসভা থেকে বিজেপি কে আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

নিজস্ব প্রতিবেদন: আঘাত তাঁকে কাবু করতে পারেনি। পায়ে প্লাস্টার নিয়েই তিনি বিগত এক মাস ধরে অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন একুশের ভোটে তৃণমূলের অস্তিত্ব বাংলার বুকে টিকিয়ে রাখার জন্য। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হুইল চেয়ার কে সঙ্গী করেই তার মতামত পৌঁছে দিচ্ছেন বাংলার প্রতিটি মানুষের কাছে।

জনসভা থেকে শুরু করে রোড শো প্রভৃতির মাধ্যমে তিনি মানুষের আরো কাছে পৌঁছাতে চাইছেন। তার একটাই লক্ষ্য নবান্নের কর্তৃত্ব তৃণমূলের হাতেই কুক্ষিগত করে রাখা। কিন্তু একক শক্তিশালী দল হিসেবে ক্রমশ‌ই মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে বিজেপি । কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী প্রথম থেকেই আত্মবিশ্বাসী যে বাংলা থেকে তিনি সাফ করে দিতে সক্ষম হবেন বিজেপিকে।জনসভা থেকে তিনি কড়া আক্রমণ শানিয়েছেন বিজেপিকে।

আরও পড়ুন-সারদা মামলায় এবার মদন মিত্রের প্রাক্তন পিএ কে তলব করলো এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট

তিনি বলেছেন , “বিজেপির দাঙ্গা করে, খুন করে, লোক মারে, মিথ্যে কথা বলে। কাল পাহাড়ে গিয়ে বলে এসেছে এনআরসি তো আমি চাইনি , কিন্তু আসামে কাল‌ থেকে আবার ডিটেনশন ক্যাম্পে লোক পাঠাতে শুরু করেছে। যাই ইলেকশন হয়ে গিয়েছে ওমনি আসামে বিজেপি ডিটেনশনের নোটিশ দিতে শুরু করেছে। কিন্তু আমি আপনাদের বলে রাখছি আমি এন‌আরসি করতে দেবোনা। আমার কাছে সবাই নাগরিক।

মনে রাখবেন আমি আপনাদের চৌকিদার ন‌ই , আমি আপনাদের পাহারাদার। বিজেপি ভোটের লাইনে গুলি করে মানুষ মেরে দিয়ে বলছে ঠিক করেছি। লজ্জা করে না ? সবাই মিলে ভোটটা দেবেন । কেউ ভয় দেখালে শুনবেন না আর কোনরকম গন্ডগোলে যাবেন না। শান্তিতে ভোটটা দেবেন। নিজের নামটা ভোটার লিস্টে রাখবেন যাতে কোনদিন এনপিআর, এনআরসি করে আপনার নামটা ভোটার লিস্ট থেকে যাতে বাদ না দিয়ে দেয়।”