ফের আক্রান্ত বিজেপি প্রার্থী;বীরভূমের ভাদুরিয়া গ্রামে প্রচারে যাওয়ার সময় গাড়ি ভাঙচুর করে বাঁধা!

ফের আক্রান্ত বিজেপি প্রার্থী;বীরভূমের ভাদুরিয়া গ্রামে প্রচারে যাওয়ার সময় গাড়ি ভাঙচুর করে বাঁধা!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-নির্বাচনের প্রথম দফার শুরু থেকেই বিভিন্ন জায়গায় বিজেপি প্রার্থীদের উপর হামলার অভিযোগ জানিয়ে এসেছে গেরুয়া শিবির। বর্তমানে রাজ্যে ভোটের চতুর্থ দফা পৌঁছে গেলেও এই নিয়মের ক্ষেত্রে কোন ব্যতিক্রম লক্ষ্য করা গেল না। আবারো পঞ্চম দফার ভোটের প্রচার এর আগে বীরভূমের ভাদুরিয়া গ্রামে প্রচারে গিয়ে আক্রান্ত হলেন দুবরাজপুরের বিজেপি প্রার্থী।

ওয়াকিবহাল সূত্রের খবর অনুযায়ী,প্রসঙ্গত ভাদুরিয়া গ্রাম প্রথম থেকেই রাজনৈতিকভাবে উত্তপ্ত এলাকা হিসেবে পরিচিত। একাধিকবার এই এলাকায় তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে সংঘর্ষ লক্ষ্য করা গিয়েছে।এদিন ভোটের প্রচারে গিয়ে দুবরাজপুরের বিজেপি প্রার্থী অনুপ সাহা দাবি করেন ভাদুরিয়া গ্রাম এর কাছ থেকে তার গাড়ি পেরোনোর সময় হঠাৎ করেই তৃণমূল আশ্রিত কিছু দুষ্কৃতিরা ‘খেলা হবে’ শ্লোগান দিয়ে তার গাড়িতে তীব্র ভাঙচুর চালায়।

আরও পড়ুন-‘দুয়ারে রেশন কীভাবে হবে? দুয়ারে রেশন আসলে ভাঁওতাবাজি’; ভোটপ্রচারে এসে দাবি করলেন মিঠুন!

রীতিমতো প্রায় ঘন্টা খানেক এর কাছাকাছি সময়ে বাঁশ, লাঠি প্রভৃতি দিয়ে ঘিরে রেখে ভাঙচুর চালানো হয়।এখনো পর্যন্ত এই ঘটনায় কোনো মানুষের আহত হওয়ার খবর না পাওয়া গেলেও স্থানীয় অঞ্চলের উত্তপ্ত পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়ে রয়েছে।গতকাল চতুর্থ দফার ভোট চলাকালীন সময়ে কোচবিহারের শীতলকুচি এলাকায় চার যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় একদিকে রাজ্যজুড়ে হিংসাত্মক পরিস্থিতির উদ্ভব হয়েছে।

অপরদিকে এহেন রাজ্যের বিভিন্ন অংশের ছোট ছোট হানাহানির ফলে ক্রমশ যে প্রশাসনিক ব্যবস্থা ভেঙে পড়ছে তাতে কোন সন্দেহ নেই। কারণ এই দিনের ঘটনায় পুলিশ গিয়ে পৌঁছানো পর্যন্ত ভাঙচুর থেকে শুরু করে আক্রমণ সবকিছুই হয়ে গিয়েছিল। অবশ্য বিজেপির আনা এই অভিযোগ অসঙ্গত দাবি করে খারিজ করে দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। ঘটনার সাথে শাসক দলের কোনো যোগাযোগ নেই বলেই দাবি করেছেন স্থানীয় শাসক দলের নেতারা। তবে ভাঙচুরের সময় খেলা হবে শ্লোগান ব্যবহার করায় গেরুয়া শিবির কর্তৃপক্ষের দাবি, হেরে যাওয়ার কথা বুঝতে পেরে যেনতেন প্রকারে নিজেদের জমি বাঁচানোর চেষ্টা করছে তৃণমূল।