নিউজঅফবিটআবহাওয়ারাজ্য

বড়োসড়ো দূর্যোগ ঘনীভূত হয়েছে বাংলার আকাশে। জানালো আবহাওয়া দপ্তর

নিজস্ব প্রতিবেদন: পশ্চিমবঙ্গের মাটিতে আগমন ঘটেছে বর্ষার। উত্তর প্রদেশ থেকে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে একটি মৌসুমী অক্ষ রেখা। এই মৌসুমী অক্ষরেখার ফলে উড়িষ্যা ঝাড়খন্ড এবং ছত্রিশগড়ে একটি ঘূর্ণাবর্তের দেখা মিলেছে। এই ঘূর্ণাবর্তের ফলে উত্তরবঙ্গ এবং দক্ষিণবঙ্গে যথেষ্ট বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা জারি করেছে আবহাওয়া দপ্তর।

তবে দক্ষিণবঙ্গের তুলনায় উত্তরবঙ্গে হবে ব্যাপক বৃষ্টিপাত।আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে আজ কলকাতা শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকতে চলেছে ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকতে চলেছে ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি। বাতাসে আপেক্ষিক আদ্রতা থাকবে ৮৬%। শহরজুড়ে হালকা বৃষ্টিপাত এবং বজ্রপাতে সম্ভাবনা রয়েছে।

আরও পড়ুন-এসবিআই জারি করলো নতুন নিয়ম। এটিএম থেকে টাকা তুলতে গেলে দিতে হবে অতিরিক্ত মাশুল

কিন্তু সমগ্র দক্ষিণ বঙ্গ জুড়ে এখন আপাতত ভারী বৃষ্টিপাত হবে না বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে। বৃদ্ধি পাবে আদ্রতাজনিত অস্বস্তি। তবে উত্তরবঙ্গের মাটিতে দার্জিলিং এবং কালিম্পং এ আজ হলুদ সর্তকতা জারি করা হয়েছে এবং সেইসাথে আবহাওয়া দপ্তর ধ্বসের অ্যালার্ট জারি করেছে।

আরও পড়ুন-“গরীব দেশগুলোর কাছে অবিলম্বে টীকা পাঠান”- উন্নত দেশগুলোর কাছে আবেদন করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

উত্তরবঙ্গের মাটিতে কোচবিহার ,আলিপুরদুয়ার, দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি তে হলুদ সর্তকতা জারি করা হয়েছে। দক্ষিণবঙ্গের মাটিতে হালকা বৃষ্টিপাত হতে পারে কলকাতাসহ পশ্চিম মেদিনীপুর এবং ঝাড়গ্রাম জেলায়। এছাড়াও আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে উত্তরবঙ্গে ব্যাপক বৃষ্টিপাতের ফলে নদী গুলিতে জল স্তর বৃদ্ধি পেতে পারে। আজ সোমবার উত্তরবঙ্গ জুড়ে প্রায় সর্বোচ্চ ১১ সেন্টিমিটার বৃষ্টিপাত হতে পারে।

সেইসাথে বজ্রপাতের সম্ভাবনা জারি করেছে আবহাওয়া দপ্তর। বজ্রপাতের সময় মানুষকে বাড়ির বাইরে থাকতে নিষেধ করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button