বড় ঘোষণা রাজ্যের, এবার থেকে সপ্তাহে দুদিন বাংলায় চলবে কড়া লকডাউন

করোনার স-ন্ত্রা-স এখনও অব্যাহত সারা ভারত জুড়ে। প্রতিদিন আ-ক্রা-ন্ত হ‌ওয়ার নিরিখে রেকর্ড তৈরি করছে এই মা-র-ণ ব্যা-ধি। এখনও পর্যন্ত বহু মানুষের প্রাণ গিয়েছে। বিজ্ঞানীরা নিরলস পরিশ্রম করছেন এই মা-র-ণ ব্যাধির অ্যান্টিভাইরাস বের করার জন্য। কিন্তু এখনো কোনো সঠিক দিশা খুঁজে পাচ্ছেন না তাঁরা

তবে রাশিয়া এবং আমেরিকার বিজ্ঞানীরা আশার আলোর উৎস দেখিয়ে বলেছেন যে, খুব শীঘ্রই তাঁরা করোনার ভ্যাকসিন বের করতে চলেছেন। যার ফলে অতীতের সেই স্বাভাবিক দিনগুলো ফিরে পাওয়ার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন জনসাধারণ। রাজ্য তথা কেন্দ্রের পক্ষ থেকে প্রথম থেকেই নাগরিকদের নির্দিষ্ট দূরত্ববিধি মেনে চলতে বলা হয়েছে। মেনে চলতে বলা হয়েছে সমস্ত রকম সুরক্ষা বিধিও।

আরও পড়ুন –কবে থেকে খুলতে পারে স্কুল?স্পষ্ট আভাস দিয়ে জানিয়ে দিলো কেন্দ্র

কিন্তু কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না এই করোনার প্রকোপ। ইতিমধ্যেই অনেক মানুষের প্রাণ কেড়েছে এই প্রাণঘা-তী রোগ। অনেকেই সুস্থ্য‌ও হয়েছেন। তবে এখনো অনেকেই নির্দিষ্ট দূরত্ববিধি মেনে চলছে না। অনেকেই মাস্ক পরা, স্যানিটাইজার ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকছেন। যার ফলে প্র-কো-প বাড়ছে করোনা। এই পরিস্থিতিতে এবার এক নতুন পদক্ষেপ নিলো পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার।

আরও পড়ুন –বলিউডে ফের নক্ষত্রপতন, সুশান্তের পর চলে গেলেন জনপ্রিয় এই তারকা!

রাজ্য সরকার নতুন নির্দেশিকা জারি করে জানিয়েছে, এবার থেকে রাজ্যে প্রতি সপ্তাহে যেকোনো নির্দিষ্ট ২ দিন লকডাউন থাকবে । রাজ্য সরকার নির্দেশিকা দিয়েছে, চলতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার এবং শনিবার এই দুটি দিনকে দুটিকে লকডাউনের জন্য স্থির করা হয়েছে। আগামী সপ্তাহে বুধবারের দিনটিকে লকডাউনের জন্য স্থির করা হয়েছে। আর কোন দিনটি লকডাউন করা হবে সেটা এখনো নির্ণয় করা হয়নি।

আরও পড়ুন – লকডাউনে বিদ্যুতের বিল নিয়ে বড় ঘোষণা সিইএসসির, রাজ্যের অনুরোধ কী রাখলো কর্তৃপক্ষ?

এই উদ্যোগটি আগেই গ্রহণ করেছিলো উত্তর প্রদেশ, এবং ওড়িশার রাজ্য সরকার। উত্তরপ্রদেশ, এবং ওড়িশায় শনিবার এবং রবিবার এই নির্দিষ্ট দুটো দিনেই লকডাউন পালিত হচ্ছে। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গে সপ্তাহের কাজের দিন গুলিতেই লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে, যার ফলে সমস্যায় পড়েছেন অনেক মানুষ। এমনিতেই করোনা আবহে অনেকের‌ই কাজ কারবারে অনেক বাধা সৃষ্টি হয়েছে।

সোমবার দিনেই সাংবাদিক বৈঠকে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় এই ব্যাপারে সাংবাদিকদের সূচিত করেছেন।

এখানে আপনার মতামত জানান