“বাংলায় আগুন জ্বলছে।”- ভাটপাড়া বোমাবাজি কান্ডে টুইট করে রাজ্য সরকারকে আক্রমণ রাজ্যপালের।

“বাংলায় আগুন জ্বলছে।”- ভাটপাড়া বোমাবাজি কান্ডে টুইট করে রাজ্য সরকারকে আক্রমণ রাজ্যপালের।

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশের ভোটের পর থেকেই রীতিমতো উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে বাংলার রাজনৈতিক পরিস্থিতি। অর্জুন সিং এর গড় ভাটপাড়াতে দুষ্কৃতীদের ছোঁড়া বোমার আঘাতে মৃত্যু হয়েছে এক অ্যাপ নির্ভর ট্যাক্সিচালকের । জানা গিয়েছে নিহত ট্যাক্সি চালকের নাম হল জয়প্রকাশ যাদব। সে ভাটপাড়ার কুলি ডিপো এলাকার বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গতকাল দুপুরে বাড়ির দরজার সামনেই দাঁড়িয়ে ছিলেন ওই যুবক। তখনই অতর্কিতে এসে তাঁকে লক্ষ্য করে বোমা ছোঁড়ে এক দুষ্কৃতী। অত্যন্ত আশঙ্কাজনক অবস্থায় জয়প্রকাশ কে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। চিকিৎসকরা ওই যুবককে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন-ভাটপাড়ায় আবার বোমাবাজি। মৃত এক যুবক।

সিসিটিভি ক্যামেরায় দেখা গিয়েছে এক দুষ্কৃতীকে হামলা করার পর পালাতে। এই ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে সমগ্র ভাটপাড়া জুড়ে । বিজেপি দাবী করেছে যে নিহত যুবক জয়প্রকাশ তাদের দলের কর্মী। এই বোমাবাজির পিছনে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের হাত রয়েছে বলে দাবি করছে রাজ্য বিজেপি।

আরও পড়ুন-কাঁথি পৌরসভা থেকে ত্রিপল চুরি কান্ডে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জ‌ওয়ানদের তলব করলো রাজ্য পুলিশ।

উল্টোদিকে তৃণমূল নেতা পার্থ ভৌমিক দাবী করেছেন যে জয়প্রকাশ কোনো দল‌ই করতেন না। অর্জুন সিং এর দলবলের বোমাবাজির কারণে তিনি মারা গিয়েছেন।আর এই ঘটনার পরেই রাজ্যপাল শাণিত বাক্যবাণে বিদ্ধ করেছেন রাজ্য প্রশাসন কে। রাজ্যপাল টুইট করে লিখেছেন , “ভোট-পরবর্তী হিংসায় ভাটপাড়ার এক নম্বর ওয়ার্ডে ২৫ বছরের এক তরুণের মৃত্যু হয়েছে।

আরও পড়ুন-“অগ্নিকুন্ডের উপর বসে রয়েছে বাংলা।”- ভাটপাড়ায় দুষ্কৃতীদের ছোঁড়া বোমার আঘাতে ট্যাক্সি চালকের মৃত্যুতে বললেন রাজ্যপাল।

আজ বেলা সাড়ে তিনটে নাগাদ ভাটপাড়া পুরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের কয়লাডিপো মোড়ে ওই তরুণ মারা গিয়েছেন বোমা হামলায়। অগ্নিকুন্ডের উপরে বসে আছে বাংলা। কিন্তু হিংসার আগুন থেকে বাংলাকে বের করে আনার কোন প্রচেষ্টা পুলিশের মধ্যে দেখছি না।“এই টুইট করে রাজ্য পুলিশকে এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে ট্যাগ করেছেন রাজ্যপাল।