“আগে তৃণমূল চালচোর ছিল, এখন টাকা চোর”- আম্ফানে দু’র্নীতি প্রসঙ্গে মমতাকে ক’টাক্ষ দিলীপ ঘোষের

শৌভিক বাগ:বর্তমানে বাংলায় তথা দেশের মধ্যে সন্ত্রাসের ঘোর রাজত্ব চালাচ্ছে করোনা। প্রতিদিনই মৃ’ত্যু হচ্ছে অনেক মানুষের। মৃ’ত্যু’ভ’য়’কে বিভীষিকাময় সঙ্গী করে নিরন্তর জীবনের সাথে লড়াই করে চলেছে মানুষজন। সকলেই স্বপ্নয়য় চোখে চেয়ে রয়েছে সেই স্বাভাবিক দিনগুলি ফেরার অপেক্ষায়।

এইসময় দেশের মানুষের উচিৎ সকলের সাথে সকলের ঐক্যবদ্ধভাবে মিলেমিশে এই কঠিন পরিস্থিতির বিরুদ্ধে লড়াই করা। সেইসাথে রাজনৈতিক নেতাদের‌ও উচিৎ এই সঙ্কটময় পরিস্থিতির মধ্যে সকলের কাজের মধ্যে সমন্বয় সাধন করা। কিন্তু তা আর হচ্ছে কোথায় ? এই আশঙ্কার ঘনঘটার মধ্যেও অব্যাহত রাজনৈতিক দলগুলির একে অপরকে কাদা ছোঁড়াছুঁড়ির নোংরা খেলা। এখনও আমফানের ক্ষতিপূরণ, রেশন দূর্নীতি থেকে শুরু করে করোনার আবহে রাজ্যের মানুষের সুরক্ষার ব্যবস্থা সবকিছু নিয়েই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা।

আরও পড়ুন- অনলাইনে বিনামূল্যে দেখতে পাবেন সুশান্তের ‘দিল বেচারার’ সম্পূর্ণ সিনেমা, কবে কিভাবে দেখতে পাবেন?

মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা হয়ে রাজ্যের বুকে হাজির হয়েছিলো আমফান। ঝড়ের তান্ডব ওড়িশা সহ বাংলার দক্ষিণবঙ্গের বুকে প্রবল ক্ষ’তচি’হ্ন এঁকে দিয়েছিলো। এখনও সেই ক্ষতচিহ্ন বাংলার বুকে বিদ্যমান। বহু মানুষ এই ঝড়ের তান্ডবে ঘরছাড়া হয়েছেন। অনেকের প্রাণ‌ও গিয়েছে। এই অসহায় , গৃহহীন বা যাদের বাড়ি খুবই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের সাহায্যার্থে প্রতিটি ক্ষ’তি’গ্র’স্ত দের। অ্যাকাউন্টে ২০০০০ টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কিন্তু এই ক্ষতিপূরণের টাকা বিলি শুরু হতেই দেখা দেয় দূর্নীতির কালো মেঘ। বহু জায়গা থেকে অভিযোগ আসতে শুরু করে যে দলীয় কর্মীরা দূর্নীতির মাধ্যমে তাদের এবং তাদের মনোনীত লোককেই এই টাকা পাইয়ে দিচ্ছে। এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই ব্যবস্থা নেয় রাজ্য নেতৃত্ব। বেশ কয়েকজন দলীয় কর্মীকে দল থেকে বহিষ্কার করে তৃণমূল। এক পঞ্চায়েত প্রধানকেও বহিষ্কার করে দল।

আরও পড়ুন- বড় খবর- ব্যায়সঙ্কোচ কমাতে রেলে এবার বাতিল, করোনায় বড় ধা’ক্কা খেলো ভারতীয় রেল!

এই প্রসঙ্গে এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে বিঁধলেন বাংলার বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি সংবাদমাধ্যম কে বলেছেন যে, “মুখ্যমন্ত্রীর এগুলো আইওয়াশ ছাড়া আর কিছুই না। সবকিছুই রাজ্য সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গিয়েছে। আগে তৃণমূল ছিলো চাল-চোর, এখন টাকা চো’র’‌ও হয়েছে।”দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্যের নিরিখে এখনও কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি রাজ্য তৃণমূল নেতৃত্ব।

এখানে আপনার মতামত জানান