“যারা এসব করছে তাদেরকেই জিজ্ঞাসা করুন।”- আলাপন ইস্যুতে বললেন দিলীপ ঘোষ।

“যারা এসব করছে তাদেরকেই জিজ্ঞাসা করুন।”- আলাপন ইস্যুতে বললেন দিলীপ ঘোষ।

নিজস্ব প্রতিবেদন: গত ৩১ শে মে রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিল্লিতে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিলো কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে। এই নির্দেশকে কেন্দ্র করে ব্যাপক দ্বৈরথ সৃষ্টি হয়েছিলো রাজ্য এবং কেন্দ্রের মধ্যে। কিন্তু আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় রিটায়ার নিয়েছেন এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখ্য উপদেষ্টা হিসাবে নিযুক্ত হয়েছেন।

করোনার এই আবহে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে বদলি করার চেষ্টা করে প্রতিহিংসার রাজনীতি করছে কেন্দ্রীয় সরকার এমনটাই অভিযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা। এর পরেই মুখ্যসচিব পদ থেকে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে অবসর দিয়ে সরিয়ে আগামী ৩ বছর মুখ্যমন্ত্রীর মুখ্য উপদেষ্টা হিসেবে তাঁকে নিয়োগ করার কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়এরপর রাজ্যের নতুন মুখ্যসচিব হচ্ছেন হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী। তাঁর জায়গায় নতুন স্বরাষ্ট্রসচিব পদে বসবেন বি পি গোপালিকা।

আরও পড়ুন-টীকা রফতানি বন্ধ করলো ভারত। বিপাকে ১০০ টি দেশ। চিন্তিত হু।

আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় কে ঘিরে যথেষ্ট উত্তপ্ত পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার এবং রাজ্য সরকারের মধ্যে।এই প্রসঙ্গে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ মন্তব্য করেছেন যে, “আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় এর এই বিষয়টি ঘিরে অহেতুক রাজনীতি চলছে, যারা এটা করছে তাদেরকে জিজ্ঞাসা করুন। আলাপন বাবু কাজ করার পর অবসর গ্রহণ করেছেন, এরপর কিছু বলার নেই। প্রশাসনিক রীতিনীতি মেনেই এটা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী সমস্ত ব্যাপারেই রাজনীতি তুলে ধরেন । এটাই উনার স্বভাব। কিন্তু উনি সমস্ত আমলাদের সম্মিলিত প্রতিবাদ জানাতে বলেছেন। আইপিএস, আইএএস অফিসারদের তিনি পথে নামতে বলছেন। এটা আমাকে খুব অবাক করেছে।”