নিউজপলিটিক্সরাজ্য

দিলীপ ঘোষের সাথে মতানৈক্যের কারণে বিজেপি ছাড়ছেন আরো এক বিজেপি নেতা।

নিজস্ব প্রতিবেদন: একুশের ভোটে বিজেপি রাজ্যের মাটিতে তাদের গড় আরো মজবুত করার লক্ষ্যে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। একুশের ভোটের আগে বাংলায় দিনের পর দিন র‌্যালি এবং জনসভায় অংশগ্রহণ করেছিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতারা। কিন্তু একুশের ভোটের ফলাফলে সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়েছে বিজেপি। আর তারপরেই বিজেপিতে আসা দলবদলু নেতারা আবার পাল্টি মারতে শুরু করে দিয়েছেন।

যারা ভোটের আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে এসে বলেছিলেন, ‘দলে থেকে কাজ করতে পারছি না।’, তারাই আবার তৃণমূলের ছত্রছায়ায় যাওয়ার জন্য কাকুতি মিনতি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে। একুশের ভোটে জেতার পরেই তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন করেছেন মুকুল রায়। আর মুকুল রায়ের তৃণমূলের প্রত্যাবর্তন করার পরেই একের পর এক দলবদলু নেতারা বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরতে শুরু করে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন-ত্রিপুরার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্ষোভ আছড়ে পড়ল জলপাইগুড়িতে। ভাঙচুর বিজেপির পার্টি অফিস। পোড়ানো হলো অমিত শাহের কুশপুতুল।

অনেক ক্ষেত্রেই দেখা গিয়েছে দিলীপ ঘোষ কে দায়ী করে দল ছাড়ছেন অনেকেই। ‌ সম্প্রতি সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিতে চেয়েছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। কিন্তু কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের অনুরোধে ইস্তফা না দিলেও তিনি ঘোষণা করেছেন যে আর কোনও রাজনৈতিক কর্মসূচিতে তিনি অংশগ্রহণ করবেন না।এই আবহের মধ্যে আরো এক বিজেপি নেতা বিজেপি ত্যাগ করার কথা ঘোষণা করেছেন ।

এখানেও কারণ হিসেবে তিনি দিলীপ ঘোষের উপর দায় চাপিয়ে দিয়েছেন।এই বিজেপি নেতা হলেন অভিনেতা অনিন্দ্য বন্দ্যোপাধ্যায় । একুশের ভোটের আগে তার হাত ধরেই টলিউডের বহু শিল্পীরা বিজেপিতে নাম লিখিয়েছিলেন। ‌ তিন বছর ধরে তিনি পদ্মফুল শিবিরের সাথে কাজ করছেন। ‌

আরও পড়ুন-“অমিত শাহ যদি বুধবার সংসদে উপস্থিত হন তাহলে মাথা মুড়িয়ে নেবো”- খোলা চ্যালেঞ্জ তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েনের”

এবার তিনি সরাসরি দিলীপ ঘোষ কে দায়ী করে বিজেপি ছাড়ার কথা ঘোষণা করেছেন। ‌ এই ঘটনায় অস্বস্তি বৃদ্ধি পেয়েছে বঙ্গ বিজেপির। ‌ অনিন্দ্য বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন যে দিলীপ ঘোষের বেশ কিছু মন্তব্য তার মনে অনেক আঘাত দিয়েছে।বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ টলিউড অভিনেতা-অভিনেত্রীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে একটি মন্তব্য করেছিলেন।

তিনি বলেছিলেন যে, “শিল্পীরা যদি নিজেদের কাজ ছেড়ে দিয়ে রাজনীতিতে নাম লেখাতে আসে তাহলে তাদের রীতিমতো রগড়ে দেওয়া হবে।”দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্যে অত্যন্ত চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছিল রাজ্যজুড়ে। টলিউডের একাধিক অভিনেতা-অভিনেত্রীরা দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্যের ঘোরতর প্রতিবাদ করেছিলেন। এই পরিপ্রেক্ষিতে অভিনেতা তথা বিজেপি নেতা অনিন্দ্য বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন,”আমি প্রথম থেকেই সন্ত্রাসের বিরোধিতা করে আসছি।

আরও পড়ুন-কংগ্রেসের আমন্ত্রণে প্রাতরাশ বৈঠকে রণকৌশল স্থির করলেন তৃণমূলসহ বিজেপি বিরোধী নেতারা

আজ দিলীপ ঘোষ প্রকাশ্যে যদি এই মন্তব্য করতে পারেন তাহলে বিজেপির কর্মীরা মধ্যে আরও বড় কিছু ঘটনা ঘটিয়ে ফেলতে পারে। ‌ রাজ্য সভাপতির প্রকাশ্যে এই সমস্ত মন্তব্যের ফলে বিজেপির প্রতি আগ্রহ আমার দিনের পর হ্রাস পাচ্ছে। যার জন্য আমি দল ত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

Related Articles

Back to top button