অমিল ভ্যাকসিন। ভ্যাকসিন দেওয়া অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দিল বাঁকুড়ার স্বাস্থ্যকেন্দ্র

অমিল ভ্যাকসিন। ভ্যাকসিন দেওয়া অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দিল বাঁকুড়ার স্বাস্থ্যকেন্দ্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: সারা দেশের মধ্যে এক পৈশাচিক মৃত্যু যাত্রার সূচনা করেছে করোনাভাইরাস এর দ্বিতীয় পর্যায়ের শক্তিশালী ঢেউ। প্রথম পর্যায়ে অগণিত মানুষের মৃত্যুর মিছিলে দেখেছিল দেশবাসী তথা পৃথিবীবাসী । চোখের জলে প্রিয়জনকে শেষ বিদায় জানিয়ে ছিলেন বহু মানুষ। অনেকেই তার প্রিয়জনকে শেষ দেখা টুকুও দেখতে পাননি। বেওয়ারিশ এর মত অনেকেই শ্মশানে পুড়েছেন, কবরে চিরনিদ্রায় ঘুমিয়ে পড়েছেন ।

প্রথম পর্যায়ের বীভৎসতা কিছুটা হলেও কেটে গিয়েছিল ২০২০ সালের শেষের দিকে। কিন্তু বিগত একমাস ধরে আবার ঘুরে আঘাত করতে শুরু করেছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। ইতিমধ্যে বহু মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। আবার ঘুরেফিরে এসেছে সেই একই চিত্র। হসপিটালে মানুষকে নিয়ে যাওয়ার লোক থাকছে না , আবার অনেকক্ষেত্রেই বহু মানুষ কোনোরকম অ্যাম্বুলেন্স‌ও পাচ্ছেন না।

আরও পড়ুন-“বাংলার মহিলারাই মুখ্যমন্ত্রীকে বিসর্জন দেবেন”- বললেন দিলীপ ঘোষ।

অক্সিজেনের জন্য হাহাকার পড়ে গিয়েছে। সেই সাথে বহু জায়গাতেই ভ্যাকসিনের অপ্রতুলতা দেখা গিয়েছে।ভ্যাকসিন অমিল‌ হ‌ওয়ায় বাঁকুড়া পৌরসভা পরিচালিত স্বাস্থ্যকেন্দ্রে সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হলো করোনার প্রথম ডোজের ভ্যাকসিন প্রদান। গত বৃহস্পতিবার থেকে প্রথম ডোজের ভ্যাকসিন দেওয়া সাময়িকভাবে বন্ধ করে দিয়েছে এই স্বাস্থ্য কেন্দ্র।

বাঁকুড়া পৌরসভার পৌর প্রশাসক অলোকা সেন মজুমদার বলেছেন , “আমরা নোটিশ টাঙিয়েছি, ভ্যাকসিন না আসা পর্যন্ত আমরা মানুষকে ভ্যাকসিন দিতে পারছি না।”ওই অঞ্চলের বিজেপি নেতা বলেছেন, “আসলে এই ভ্যাকসিন গুলো কি ঠিকঠাকভাবে পরিকল্পনামাফিক দেওয়া হচ্ছে না। ভ্যাকসিন নিয়েও রাজনীতি করছে তৃণমূল।“পুরসভা জানিয়েছে যারা প্রথম ডোজ পেয়ে গিয়েছে তাদের দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হবে। তাই যারা প্রথম ডোজ এখনো পাননি, তাঁরা চরম উৎকন্ঠায় রয়েছেন।