‘আধাসেনা এবং সরকারি কাজে নিযুক্ত সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের প্রতি সর্বদা সম্মান দেখানো উচিত’;পরোক্ষভাবে মমতাকে আক্রমণ রাজ্যপালের!

‘আধাসেনা এবং সরকারি কাজে নিযুক্ত সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের প্রতি সর্বদা সম্মান দেখানো উচিত’;পরোক্ষভাবে মমতাকে আক্রমণ রাজ্যপালের!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-গতকাল থেকেই শীতলকুচি কাণ্ডে একের পর এক ব্যক্তিবর্গ ক্রমাগত মন্তব্য রেখে চলেছেন। এবার এই ঘটনায় মুখ খুললেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। প্রসঙ্গত গতকাল শীতলকুচিতে জওয়ানদের গুলিতে যুবকদের মৃত্যুর ঘটনায় ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু হয়ে গিয়েছে।তবে এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় প্রকৃতপক্ষে অভিযুক্ত কে তার কোনো বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়নি।

এমতাবস্থায় আজ রবিবার টুইটারে এক বিবৃতি প্রকাশ করে নাম না করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় বলেন,”অশান্তি বন্ধ করতে সকলের এগিয়ে আসা উচিত। গণতন্ত্রে হিংসার কোন জায়গা নেই। হিংসা ত্যাগ করা উচিত সকলের। অত্যন্ত দুঃখজনক এবং বেদনাদায়ক ঘটনা এটি। হিংসার জেরেই কোচবিহারে এই ঘটনা ঘটেছে। আধাসেনা এবং সরকারি কাজে নিযুক্ত সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানের প্রতি সর্বদা সম্মান দেখানো উচিত”।

প্রসঙ্গত গতকাল শীতলকুচি কাণ্ডের সমস্ত অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রী কেন্দ্রীয় বাহিনীর ওপর চাপিয়ে দিয়েছেন। কারণ স্থানীয় গ্রামবাসীদের একাংশের বক্তব্য ছিল সেখানে এমন কোন ঘটনা ঘটেনি যাতে গুলি চালানোর প্রয়োজন হয়েছিল। এমনকি যে যুবকেরা মারা গিয়েছেন, তারা সদ্য ভোট দেওয়ার জন্য কেরল থেকে বাংলায় এসেছিলেন। তাই কোন রকম ভাবেই বাংলার রাজনৈতিক মতবিরোধে তাদের কোন যোগাযোগ ছিল না।

আরও পড়ুন-‘মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মৃত্যু নিয়েও তোষণের রাজনীতি করছেন’; মন্তব্য অমিত শাহের!

আপাতত এই ঘটনার জেরে আগামী 72 ঘন্টা কোচবিহারে রাজনৈতিক নেতাদের প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে জাতীয় নির্বাচন কমিশন।এই নিয়মের আওতায় এসেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্য নেতারাও । ফলস্বরূপ এদিন রবিবার নিহতদের পরিবারের সাথে ভিডিও কলের মাধ্যমে সংযোগ স্থাপন করতে বাধ্য হন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মৃতদের পরিবারকে সমস্ত রকম আর্থিক এবং সামাজিক সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।নির্বাচন কমিশনের অনুমতি নিয়ে আহতদের ২ লক্ষ টাকা করে এবং নিহতদের ৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। খুব শীঘ্রই এই ক্ষতিপূরণ নিহত যুবকদের পরিবারের কাছে পৌঁছে যাবে বলে দাবি করেছেন মমতা।