“আলাপন বাঙালি , কিন্তু দময়ন্তী সেন কি বহিরাগত ছিলেন?”- মুখ্যমন্ত্রীকে প্রশ্নবান সোশ্যাল মিডিয়ায়

“আলাপন বাঙালি , কিন্তু দময়ন্তী সেন কি বহিরাগত ছিলেন?”- মুখ্যমন্ত্রীকে প্রশ্নবান সোশ্যাল মিডিয়ায়

নিজস্ব প্রতিবেদন: আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে জোরদার তরজার সৃষ্টি হয়েছে রাজ্য এবং কেন্দ্রের মধ্যে। আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বদলির নির্দেশ দিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার চিঠি পাঠিয়েছিলো রাজ্যকে। এর পরেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি এটাও বলেছিলেন যে, বাঙালি হ‌ওয়ার কারণেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপরে আক্রোশ দেখাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার। আলাপন বন্দোপাধ্যায় তাঁর পদ থেকে রিটায়ার নিয়েছেন তার পরেই আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে তাঁর মুখ্য উপদেষ্টা হিসাবে নিয়োগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিকে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় কে মহামারি আইনে শোকজ নোটিশ পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এই আবহের মধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রশ্নবান ছুঁড়ে দিয়েছেন নেটিজেনরা। প্রসঙ্গ দময়ন্তী সেন। যে নির্ভীক আইপিএস অফিসারকে পার্ক স্ট্রিট ধর্ষণ কান্ডের তদন্ত করার ফলে বদলি করে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।২০১২ সালের পার্ক স্ট্রিট গণধর্ষণ কান্ডকে সাজানো ঘটনা বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। তখন এই গণধর্ষণ কান্ডের মূল অপরাধীদের ধরে মুখ্যমন্ত্রীর চক্ষুশূল হয়ে গিয়েছিলেন তৎকালীন গোয়েন্দা প্রধান দময়ন্তী সেন।

তারপরেই তাকে বদলি করে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এই ঘটনাকে ঘিরে বিস্তর ক্ষোভ প্রকাশ করেছিল আপামর রাজ্যবাসী। এই ঘটনার ঠিক নয় বছর পর আবার বাঙালি বিতর্কে প্রশ্নের মুখে মুখ্যমন্ত্রী।সোশ্যাল মিডিয়ায় বহু নেটিজেনরা প্রশ্ন করছেন, “আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় বাঙালি বলে তাকে মুখ্যমন্ত্রী এত আড়াল করছেন, তৎকালীন আইপিএস অফিসার দময়ন্তী সেন‌ও বাঙালি ছিলেন, তাঁর সাথে তাহলে এই আচরণ কেন করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী?”