আবার মানবিক মুখ রতন টাটার। করোনা রোগীদের জন্য দান করতে চলেছেন বিপুল পরিমাণ অক্সিজেন।

আবার মানবিক মুখ রতন টাটার। করোনা রোগীদের জন্য দান করতে চলেছেন বিপুল পরিমাণ অক্সিজেন।

নিজস্ব প্রতিবেদন: সারা ভারত জুড়ে ব্যাপক সন্ত্রাসের সৃষ্টি করেছে করোনা ভাইরাস। প্রতিদিন এক লাফে অনেকটাই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে বাংলা তথা সারা ভারত জুড়ে অক্সিজেনের অপ্রতুলতা দেখা দিয়েছে। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চিঠি লিখে প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেছেন যে পর্যাপ্ত পরিমাণ ভ্যাকসিন এবং অক্সিজেন পশ্চিমবঙ্গে পাঠানোর জন্য। ‌ সারা ভারতের মধ্যে অক্সিজেনের অভাবে যথেষ্ট সমস্যায় পড়েছেন করোনা রোগীরা।

দিকে দিকে হাহাকার পড়ে যাচ্ছে অক্সিজেনের জন্য।এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে দেবদূতের মতো সমস্যা নিরসনে এগিয়ে এলেন রতন টাটা। ‌ তিনি ঘোষণা করেছেন যে টাটা গ্রুপ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে অক্সিজেন সরবরাহ করবে। টাটা গোষ্ঠীর জানিয়েছে তারা ২৪ টি ক্রায়োজেনিক কন্টেনার্সের মাধ্যমে দেশে তরল অক্সিজেন সরবরাহ করবে।

আরও পড়ুন-“মুখ্যমন্ত্রী পরিস্থিতি সামলান, নাহলে আপনাকে ছাড়া হবে না।”- ভাইরাল ভিডিও তে বললেন শাসক দলের কর্মী।

এমনকি অক্সিজেন পাঠানো হবে পশ্চিমবঙ্গের বুকেও। এর ফলে দেশজুড়ে অক্সিজেনের ঘাটতি অনেকটাই পূরণ হতে চলেছে।বিভিন্ন ইস্যুতে প্রায়শই মানবিক মুখ দেখিয়েছেন রতন টাটা। ‌ তিনি একজন পশুপ্রেমী হিসেবেও পরিচিত।টাটা গোষ্ঠীর টুইটারে লিখেছে যে, “ভারতের মানুষের কাছে প্রধানমন্ত্রীর এই আবেদনের আমরা খুবই প্রশংসা করছি। করোনার বিরুদ্ধে আমরা লড়াই চালিয়ে যাব। ‌

স্বাস্থ্য পরিষেবার পরিকাঠামো আরও উন্নত করার লক্ষ্যে এবং অক্সিজেনের সংকট মেটানোর লক্ষ্যে আমাদের এটি একটি ছোট্ট প্রয়াস।”এরপরে টাটা স্টিল ঘোষণা করেছে যে রাজ্য সরকারের হাসপাতাল গুলোকে তারা প্রতিদিন ২০০ থেকে ৩০০ টন তরল অক্সিজেন পাঠাবে।

একদিকে যেমন রাজ্যবাসী তথা সারা দেশবাসীর রতন টাটার এই মানবিক উদ্যোগের অত্যন্ত প্রশংসা করেছেন তেমনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে কটাক্ষ করেছেন অনেক নেটিজেনরাই। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ছবি পোস্ট করে লেখা হয়েছে, “২০০৮ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলা থেকে টাটা কে তাড়িয়ে দিয়েছিলেন, ২০২১ সালে টাটা গোষ্ঠীই বাংলার হাসপাতালে অক্সিজেন পাঠাচ্ছে।”