আবার ভাঙ্গন গেরুয়া শিবিরে। আলিপুরদুয়ারের বিজেপি জেলা সভাপতি যোগ দিচ্ছেন তৃণমূলে।

আবার ভাঙ্গন গেরুয়া শিবিরে। আলিপুরদুয়ারের বিজেপি জেলা সভাপতি যোগ দিচ্ছেন তৃণমূলে।

নিজস্ব প্রতিবেদন: মুকুল রায় তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন করার পরেই বিজেপি শিবিরে দেখা দিয়েছে অন্তর্কলহ। মুকুল রায়ের পথে পা বাড়িয়ে রয়েছেন রাজীব বন্দোপাধ্যায় সহ বিজেপির আরো নেতারা। মুকুল রায় নিজে বলেছেন যে তার সাথে বহু বিজেপি নেতারা যোগাযোগ করছেন তৃণমূলে আসবে বলে। এদিকে বিজেপি নেতা সুনীল মন্ডল কয়েকদিন আগেই বলেছিলেন, “তৃণমূল থেকে যারা বিজেপিতে এসেছেন তাদের সাথে বিজেপি মানিয়ে নিতে পারছে না।

তাদেরকে কিছুতেই সহ্য করতে পারছেনা বিজেপির আদি নেতারা।”এদিকে মুকুল রায় তৃণমূল প্রত্যাবর্তন করার পর থেকেই নির্বাচনী বিপর্যয় এর পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্য নেতৃত্ব এবং কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন রাজ্যের বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। অনেকেই বলেছেন, নির্বাচনী প্রচারে হিন্দিভাষী নেতাদের আধিপত্য ভালোভাবে নেয়নি বাংলার মানুষ জন। যার দরুণ এবার বিজেপির হারের পরেই বাংলায় বাড়ছে গেরুয়া শিবিরে ভাঙনের ঘটনা।

আরও পড়ুন-রাজ্যের আইন শৃঙ্খলার ব্যবস্থার বিরুদ্ধে একরাশ অভিযোগ তুলে রাজ্যপালের সাথে আবার সাক্ষাৎ করলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

একুশের ভোটের আগে ব্যাপকভাবে ভাঙন দেখা দিয়েছিলো তৃণমূলে। এবার ঠিক উল্টো পরিস্থিতি বিজেপিতে। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে ভীড় জমাচ্ছেন তৃণমূল নেতা কর্মীরা। এবার আবার ভাঙন দেখা দিলো গেরুয়া শিবিরে।

আলিপুরদুয়ারের বিজেপি সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা আজ‌ই বিজেপিতে যোগদান করতে চলেছেন এমনটাই জল্পনা সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়াও গঙ্গাপ্রসাদ এর সাথে তৃণমূলে যোগদান করতে পারেন বেশ কয়েকজন বিজেপি বিধায়ক এটাও জল্পনার মধ্যে রয়েছে।জানা গিয়েছে বর্তমানে গঙ্গাপ্রসাদ শর্মার সাথে বিজেপির অনেকটাই দূরত্ব তৈরি হয়েছে। দল যে গাড়ি দিয়েছিলো তিনি তা ফিরিয়ে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন-মুকুলের পরামর্শ অনুযায়ী উত্তরবঙ্গে সংগঠন মজবুত করতে রণনীতি সাজাচ্ছে তৃণমূল

এই জল্পনার পরেই বিজেপি নেতারা গঙ্গাপ্রসাদকে পরপর ফোন করলেও তিনি কারো ফোন ধরছেন না। এরপরেই জল্পনা উঠেছে যে গঙ্গাপ্রসাদ আজ‌ই আরো বেশ কয়েকজন বিজেপি বিধায়কসহ তৃণমূলে যোগদান করতে চলেছেন। ২০১৫ সাল থেকেই আলিপুরদুয়ারের বিজেপি জেলা সভাপতির দায়িত্বে আসীন রয়েছেন গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা। তিনি যদি দলবদল করেন তাহলে যথেষ্ট অস্বস্তিতে পড়বে বিজেপি।

আরও পড়ুন-“ওটা হল বঙ্গভঙ্গ দিবস”- পশ্চিমবঙ্গ দিবসের পরিপ্রেক্ষিতে শুভেন্দু অধিকারী কে কটাক্ষ তৃণমূলের।

কিন্তু এই বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে বিজেপি। এই প্রসঙ্গে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বলেছেন, “গঙ্গাপ্রসাদ ভোটের টিকিট চেয়েছিল কিন্তু বিজেপির শীর্ষ নেতারা তাকে টিকিট দেননি। উত্তরবঙ্গে গঙ্গাপ্রসাদ কে আলিপুরদুয়ারের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব অর্পণ করা হবে। উত্তরবঙ্গে আমাদেরই দাপট অব্যাহত থাকবে।

আলিপুরদুয়ারে তৃণমূল শূন্য রয়েছে।”