নিউজপলিটিক্সরাজ্য

মুকুল রায়ের তৃণমূলের প্রত্যাবর্তনের পরেই চাণক্যের শ্লোক উদ্ধৃত করে টুইট করলেন রাজ্যপাল।

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাজ্য রাজনীতিতে বিরাট পালাবদল। ঘরের ছেলে ফিরেছেন ঘরে , মুকুলের তৃণমূলে প্রত্যাবর্তনে অনেকেই এমনটাই বলছেন। অনেকেই অপেক্ষা করেছিলেন যে কখন রাজ্যপাল টুইট করবেন এই বিষয়ে ! অবশেষে অপেক্ষার অবসান হয়েছে। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় টুইট করে চাণক্যের একটি শ্লোক উল্লেখ করেছেন।

প্রথম থেকেই রাজ্যপালের সাথে সম্পর্ক অনেকটাই তলানিতে এসে ঠেকেছে রাজ্য সরকারের। বারবার বিভিন্ন ইস্যুতে টুইট করে রাজ্যকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। মুখ্যমন্ত্রীর সাথে অহরহ তিনি টুইট যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েন। যে কোন কিছুকে কেন্দ্র করে তিনি ক্ষোভ উগরে দেন মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে।

আরও পড়ুন-তৃণমূলের প্রত্যাবর্তন করেই বিজেপির ১০ জন বিধায়ক এবং একজন সাংসদকে ফোন করলেন মুকুল রায়।

একুশের ভোটে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষপাতিত্ব করার অভিযোগে তাঁকে ‘বিজেপির দালাল’ বলে অভিহিত করেছিল তৃণমূল। গতকাল মুকুল রায়ের তৃণমূলে যোগদান এর পর থেকেই রাজ্যের রাজনৈতিক অঙ্গনে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে । সোশ্যাল মিডিয়ায় মুকুল রায়কে ব্যাপক কটাক্ষ করা হচ্ছে। কিন্তু তৃণমূল কর্মীরা সকলেই তাকে স্বাগতম জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন-হেরে গিয়েও বাংলার বেশ কয়েকজন নেতা নেত্রীদের কেন্দ্রীয় পদ দিতে চলেছে বিজেপি

একদিকে বিজেপি কর্মী সমর্থক মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন।এই পরিস্থিতিতে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় টুইট করে বলেছেন,”আশঙ্কা জাগ্রত হলেই তাকে আক্রমণ করে ধ্বংস করুন- চাণক্য। এটা কবিগুরুর-‘চিত্ত যেথা ভয় শূণ্য উচ্চ যেথা শির’- এটা বুঝতে সাহায্য করবে।রাজ্য পুলিশ এবং কলকাতা পুলিশ এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের আমলে মানুষ খুবই ভয় পেয়ে রয়েছেন।

এখানে কখনোই গণতন্ত্র প্রস্ফুটিত হতে পারবে না।”রাজ্যপালের এই টুইটের এখনও কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি রাজ্য তৃণমূল নেতৃত্ব।

Related Articles

Back to top button