নিউজপলিটিক্সরাজ্য

অমিত শাহের সাথে বৈঠক সম্পন্ন করেই দিল্লিতে অধীর চৌধুরীর বাড়িতে গেলেন রাজ্যপাল।

নিজস্ব প্রতিবেদন: রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় দিল্লি গিয়েছেন। রাজ্যপাল দিল্লি যাওয়ার আগে জানিয়েছিলেন যে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সাথে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে অংশগ্রহণ করতে দিল্লি যাচ্ছেন। কিন্তু দিল্লি যাওয়ার পর দেখা গিয়েছে তিনি যা বলেছেন তার সম্পূর্ণ বিপরীত কর্মকাণ্ড দিল্লিতে করছেন। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সাথে তিনি দেখা করেছেন।

রাজ্যের আইন শৃঙ্খলার অবনতি হয়েছে এই মর্মে তিনি রাষ্ট্রপতি কে একটি রিপোর্ট দিয়েছেন। ‌ এরপর তিনি দেখা করেছেন কয়লা মন্ত্রী এবং সংস্কৃতি মন্ত্রীর সাথে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সাথে তিনি বৈঠক সম্পন্ন করেছেন। ‌ জানা গিয়েছে দীর্ঘক্ষন এই বৈঠকে রাজ্যপাল সবিস্তারে বাংলা মাটিতে হিংসাত্মক পরিস্থিতি এবং আইন শৃঙ্খলার অবনতি সম্পর্কে অমিত শাহের সাথে আলোচনা করেছেন এবং অমিত শাহের হাতে একটি রিপোর্ট তুলে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন-বাংলার মাটিতে বিজেপির বিপর্যয় আদি নব্য বিজেপির প্রশ্নে পর্যুদস্ত কেন্দ্রীয় নেতা মন্ত্রীরা।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সাথে দেখা করার পরেই হঠাৎ দিল্লিতে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরীর বাড়িতে গিয়েছিলেন রাজ্যপাল। তার আগে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানের সাথে সাক্ষাত করেছিলেন রাজ্যপাল। তারপরেই রাতের দিকে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরীর সাথে সাক্ষাৎ করেন রাজ্যপাল। এই ঘটনায় অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেছেন যে সৌজন্যমূলক সাক্ষাৎ করতে এসেছেন রাজ্যপাল।

আরও পড়ুন-“তৃণমূল এখন ধর্ষণটাকে অস্ত্র হিসাবে ব্যবহার করছে”- নন্দীগ্রামে গিয়ে বিস্ফোরক উক্তি বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পলের।

কিন্তু হঠাৎ রাজ্যপালের ,অধীর চৌধুরীর সাথে সাক্ষাত করায় বাংলার রাজনৈতিক পটভূমিতেই যথেষ্ট জল্পনার সৃষ্টি হয়েছে। অধীর বাবু বলেছেন যে রাজ্যপাল তার কাছে সস্ত্রীক সৌজন্যমূলক সাক্ষাতে এসেছিলেন এর সাথে রাজনৈতিক কোনো বিষয়ের যোগ নেই। তবে রাজ্যপাল অনেকের সাথেই সাক্ষাৎ করলেও এখনো পর্যন্ত তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সাথে দেখা করার সুযোগ পাননি।

Related Articles

Back to top button