“মাধ্যমিকের মার্কশিটের সাথেই দেওয়া হবে অ্যাডমিট কার্ড।”- সিদ্ধান্ত মধ্যশিক্ষা পর্ষদের।

“মাধ্যমিকের মার্কশিটের সাথেই দেওয়া হবে অ্যাডমিট কার্ড।”- সিদ্ধান্ত মধ্যশিক্ষা পর্ষদের।

নিজস্ব প্রতিবেদন: করোনা আবহে বাতিল করে দেওয়া হয়েছে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। পশ্চিমবঙ্গ সরকার আগেই ঘোষণা করেছিল যে করোনা আবহ একটু শিথিল হলেই আগামী জুলাইয়ে নেওয়া হবে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা এবং আগামী আগস্টে নেওয়া হবে মাধ্যমিক পরীক্ষা‌। কিন্তু এই সিদ্ধান্তের পরেই রাজ্যজুড়ে পড়ুয়া এবং অভিভাবকদের কাছ থেকে হাজার হাজার ইমেইল আসতে থাকে পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা দপ্তর এর ওয়েবসাইটে। বেশিরভাগ মানুষ এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা স্থগিত রাখতে আবেদন জানান।

যার ফলে এই দুটি পরীক্ষা বাতিল করে দিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এবং উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষা দপ্তর ঘোষণা করেছে এই দুই পরীক্ষা আপাতত বাতিল থাকলেও যথেষ্ট সুস্পষ্ট পদ্ধতিতে মূল্যায়ন করা হবে পরীক্ষার্থীদের। তবে মূল্যায়ন পদ্ধতি পছন্দ হয়নি বহু পড়ুয়া এবং অভিভাবকদের। এছাড়াও মাধ্যমিকের অ্যাডমিট কার্ড কবে পাওয়া যাবে সেই বিষয়েও অনেকটাই ধোঁয়াশা ছিলো পড়ুয়াদের মধ্যে।

আরও পড়ুন-“পূজার আগে সাড়ে ২৪ হাজার এবং পূজার পরে সাড়ে ৭ হাজার শিক্ষক নিয়োগ করা হবে।”- ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

অবশেষে মাধ্যমিক শিক্ষা পর্ষদ জানিয়েছে যে মাধ্যমিকের অ্যাডমিট কার্ড বিলি করা না গেলেও মাধ্যমিকের মার্কশীটের সাথেই দেওয়া হবে এই অ্যাডমিট কার্ড । এমনিতেই এই অ্যাডমিট কার্ড বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রশাসনিক ক্ষেত্রে পড়ুয়াদের প্রতিলিপি জমা দিতে হয় । তাই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই অ্যাডমিট কার্ড।মাধ্যমিক শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি মহুয়া দাস ঘোষণা করেছেন যে আগামী ২০ শে জুলাইয়ের মধ্যে মাধ্যমিকের ফল প্রকাশ করা হতে চলেছে।

আরও পড়ুন-ঘরে বসে ৩০ জুনের মধ্যে করুন এই কাজ। কেন্দ্রীয় সরকার দেবে ২ লক্ষ টাকা।

যেদিন মাধ্যমিকের মার্কশীট দেওয়া হবে সেদিন পড়ুয়াদের হাতে এই অ্যাডমিট কার্ড দিয়ে দেওয়া হবে। এছাড়াও জানা গিয়েছে উচ্চমাধ্যমিকের একাদশ শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষার নম্বর জমা দেওয়ার শেষ দিন বৃদ্ধি করা হয়েছে আগামী ২৮ শে জুন পর্যন্ত।