নিউজআন্তর্জাতিকদেশ

আফগানিস্থানে আটকে রয়েছে প্রায় ১১ হাজার আমেরিকান।

নিজস্ব প্রতিবেদন: আফগানিস্তানের মাটিতে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। তালিবানের কবলে চলে গিয়েছে আফগানিস্তান। এবার আফগানিস্তানের বুকে সরকার গঠন করার লক্ষ্যে তালিবান। সমগ্র আফগানিস্তান জুড়ে বিভীষিকাময় পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। আফগানিস্তানের মাটিতে তালিবান জেহাদীরা মহিলাদের পায়ে শিকল পরিয়ে দিয়েছে। এই আবহের মধ্যে আমেরিকা তাদের অবস্থান স্পষ্ট করেছে।

তালিবানদের জন্য একটি বার্তা পাঠিয়েছেন মার্কিন সেক্রেটারি অফ স্টেট অ্যান্টনি ব্লিনকেন। তিনি বলেছেন যে আমেরিকা তালিবানদের সঙ্গে কাজ করতে পারে কিন্তু তার জন্য বেশ কয়েকটি শর্ত মানতে হবে তালিবানদের। এই আবহের মধ্যে ইসলামি আমিরাত সংস্কৃতি কমিশনের সদস্য ইনামুল্লাহ সমনগনি বলেছেন, “ইসলামী আমিরাত কখনোই চায় না যে মহিলাদের উপর অত্যাচার করা হোক। আমাদের সরকার ইসলামিক হবে এবং আমাদের সরকারে মহিলাদের নিয়োগ করা হবে।”

তবে প্রশাসনে মহিলাদের নেওয়া হলেও অত্যন্ত কড়া কিছু বিধিনিষেধ মহিলাদের জন্য লাগু করেছে তালিবান।=এদিকে আমেরিকার মাটি থেকে প্রায় ভারতের বেশীরভাগ নাগরিককেই ফিরিয়ে আনা হয়েছে। কিন্তু এখনো ১১ হাজার মার্কিন নাগরিক আমেরিকার মাটিতে আটকে রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে তালিবানের সাথে কথা বলেছে আমেরিকা। আফগানিস্তানের আকাশ সীমা বন্ধ করে দিয়েছে তালিবান।

আরও পড়ুন-“আফগান শরণার্থীদের দেওয়া হবে না কোন আশ্রয়।”- স্পষ্ট জানিয়ে দিল বাংলাদেশ

তবে মার্কিন নাগরিকদের বিমানবন্দরে আটকানো হবে না বলে আশ্বাস দিয়েছে তালিবান। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন আফগানিস্তানের বহু সাধারণ মানুষ। জো বাইডেন জানিয়েছেন যে খুব শীঘ্রই সমস্ত মার্কিন নাগরিকদের আফগানিস্তান থেকে ফিরিয়ে আনা হবে।এদিকে পৃথিবীর বহু মানুষ শক্তিধর রাষ্ট্রগুলির কাছে আবেদন জানিয়েছে যে, অবিলম্বে আফগানিস্তানকে তালিবানের কবল থেকে মুক্ত করার প্রচেষ্টা করার জন্য।

Related Articles

Back to top button