নিউজপলিটিক্সরাজ্য

“অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গাড়িতে লাঠির আঘাত অত্যন্ত নিন্দনীয়।”- মন্তব্য বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য্যর

নিজস্ব প্রতিবেদন: তৃণমূলের সর্বভারতীয় সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কনভয়ে গতকাল হামলার অভিযোগ উঠেছে। ত্রিপুরার আগরতলায় অভিষেকের গাড়ি ঘিরে ব্যাপক বিক্ষোভ দেখিয়েছে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা। অভিষেককে দেখানো হয়েছে কালো পতাকা এবং তাঁকে গো ব্যাক‌ স্লোগান‌ও দেওয়া হয়েছে। একটি ভিডিওতে দেখা গিয়েছে অভিষেকের গাড়িতে লাঠি দিয়ে আঘাত করছে বিজেপি কর্মীরা।অভিষেকের উপর হামলার ঘটনায় টুইট করেছেন রাজ্য তৃণমূল যুব সভানেত্রী সায়নী ঘোষ।

তিনি টুইট করে লিখেছেন,”বিপ্লব দেবের অতিথি দেব ভব’র চমৎকার উদাহরণ হল ত্রিপুরায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কনভয় পৌঁছাতেই তার উপর হামলা করা। তিনি মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে আসীন হয়েছেন, কিন্তু চারিত্রিকভাবে পরাজিত রয়েছেন। ‌ এই ঘটনায় প্রমাণ পাওয়া গেল ত্রিপুরায় বিজেপি ভয় আর নিরাপত্তার অভাবের মধ্যে রয়েছে।”এছাড়াও টুইট করেছেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুনাল ঘোষ।

আরও পড়ুন-“ত্রিপুরায় একমাত্র বিকল্প তৃণমূল”- বিজেপির বিরুদ্ধে সিপিএম এবং কংগ্রেসকে দাঁড়ানোর আহ্বান জানালেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

তিনি বলেছেন,”ত্রিপুরায় গণতন্ত্রের কি অবস্থা সেটা ভালোভাবে লক্ষ্য করা গেল। ‌ বিজেপিকে ধিক্কার জানাই। ২০২৩ ‘এ বিজেপি যে শেষ সেটা বুঝতে পারছে। তাই এরকম হামলা করে তৃণমূল কে ভয় দেখাতে চাইছে।”

তবে বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য সম্পূর্ণ বিপরীত অবস্থান নিয়েছেন। তিনি অভিষেকের কনভয়ে হামলার প্রসঙ্গে বলেছেন,”অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ত্রিপুরা থেকে একটি টুইট করেছেন। ‌ এই টুইটে ভিডিওটিতে দেখা গিয়েছে বিজেপির মিছিলের পাশ দিয়ে উনার গাড়ি যাচ্ছিলো, তখন একটি ছেলে ঝান্ডার লাঠি দিয়ে গাড়ির কাঁচে আঘাত করেছে। এটা সম্পূর্ণ নিন্দনীয় এবং অনভিপ্রেত একটি ঘটনা।

আরও পড়ুন-কাঁথি সমবায় ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান পদে থাকছেন শুভেন্দু। হাইকোর্টের নির্দেশে বাতিল হয়ে গেল অনাস্থা বৈঠক

‌ এই বিষয়টি কখনোই বিজেপির রুচি এবং সংস্কৃতি হতে পারে না। বিশেষ স্পর্শকাতর এলাকায় এইভাবে সামাজিক ভারসাম্য নষ্ট হতে দেখা গিয়েছে প্রায়শই। বাঁশ দিয়ে কনভয়ের উপরে কারা হামলা করেছে এই বিষয়টি আমাদের কাছে জানা নেই। তবে এটা অত্যন্ত নিন্দনীয় ঘটনা বলে আমি মনে করছি।”

Related Articles

Back to top button