ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্থ তাজপুর – মন্দারমনিতে পরিদর্শন করতে গেলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্থ তাজপুর – মন্দারমনিতে পরিদর্শন করতে গেলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

নিজস্ব প্রতিবেদন: ইয়াসে ভয়াবহ বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে রাজ্যের উপকূলবর্তী এলাকা দীঘা , শঙ্করপুর, সুন্দরবনের বিস্তীর্ণ অঞ্চল। দীঘার সমুদ্র সৈকতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ঘটেছে। কয়েক বছর আগেই দীঘার সৌন্দর্যায়ন করিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ঘূর্ণিঝড় থেমে যাওয়ার পরেই সেদিন বিকালে ডায়মন্ড হারবারে গিয়েছিলেন তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বিপর্যস্ত এলাকা পরিদর্শন করে তিনি এলাকাবাসীর সাথে কথা বলেছিলেন। সেই সাথে ত্রাণ শিবিরে গিয়ে অসহায় মানুষগুলির সুবিধা-অসুবিধার কথা জেনেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

নির্বাচনী আবহে অনেক নেতা নেত্রীরাই মানুষের পাশে দাঁড়ানোর প্রতিশ্রুতি দেন। কিন্তু অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন তিনি সর্বদা প্রতিটি মানুষের পাশে দাঁড়াবেন যে কোন বিপর্যয় হোক না কেন। সেই প্রতিশ্রুতি তিনি পালন করেছেন।গতকাল সুন্দরবনের পাথরপ্রতিমা এবং সন্দেশখালির ইয়াস বিপর্যস্ত এলাকা গুলি ঘুরে দেখেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বিপর্যস্ত এলাকার মানুষের সাথে কথা বলেছেন তিনি। গতকাল সকালেই মহেন্দ্রপুর হাই স্কুল মাঠে অবতরণ করে তার হেলিকপ্টার। তারপর তিনি সোজা চলে যান দেবীচকের ত্রাণ শিবিরে

আরও পড়ুন-“সকলের কাছেই পৌঁছাবে ত্রাণ।”- সুন্দরবনের পাথরপ্রতিমা, সন্দেশখালি পরিদর্শন করার পর আশ্বাস দিলেন অভিষেক।

সেখানে গিয়ে ত্রাণ শিবিরে থাকা দূর্গত মানুষ গুলোর সাথে কথা বলে তাঁদের সমস্যার কথা শোনেন অভিষেক। এবার আজ পূর্ব মেদিনীপুরের বিপর্যস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাচ্ছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এমনটাই জানা গিয়েছে। ‌ আজ তিনি ইয়াসের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত পূর্ব মেদিনীপুরের বিস্তীর্ণ অঞ্চল পরিদর্শন করবেন। দীঘা সমুদ্রতট থেকে শুরু করে তাজপুর, মন্দারমণি, রামনগর, উদয়পুর প্রভৃতি এলাকায় তিনি যাবেন, সেখানকার মানুষের সাথে কথা বলবেন। প্রতিটি মানুষের কাছেই যাতে ত্রাণ পৌছানো যায়, সেই ব্যবস্থা করবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।