ভারী বৃষ্টিতে ভিজতে চলেছে বাংলার এক অংশ। নিম্নলিখিত জেলাগুলোতে হতে পারে বৃষ্টি।

ভারী বৃষ্টিতে ভিজতে চলেছে বাংলার এক অংশ। নিম্নলিখিত জেলাগুলোতে হতে পারে বৃষ্টি।

নিজস্ব প্রতিবেদন: তীব্র দাবদাহে মানুষের প্রাণ ওষ্ঠাগত। এক ফোঁটা বৃষ্টির জন্য হা পিত্যেশ করে বসে আছেন বঙ্গবাসী। আবহাওয়া দপ্তর ঘোষণা করেছে যে, গত ৩ রা জুন কেরলে বর্ষার আগমন ঘটে গিয়েছে। বাংলার মাটিতে এখনো দেখা মেলেনি বৃষ্টির।

আবহাওয়া দপ্তরের সূচনা অনুযায়ী গত কয়েকদিন আগেই বাংলার মাটিতে প্রাক বর্ষার বৃষ্টির দেখা মিলেছিলো। তবে দাবদাহ কমেনি।আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে নিম্নচাপের মাধ্যমে আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই বাংলায় প্রবেশ করতে চলেছে বর্ষা। উত্তর বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ ঘনীভূত হচ্ছে যার ফলে প্রচুর পরিমাণে মৌসুমী বায়ু এবং জলীয় বাষ্প রাজ্যে প্রবেশ করতে চলেছে।

আরও পড়ুন-এবার ঘূর্ণিঝড়ের মোকাবিলায় এগিয়ে এলো ইষ্টবেঙ্গল

আগামী ১০ ই জুন রাত থেকেই গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে বর্ষা প্রবেশ করবে। অর্থাৎ আগামী ১১ ই জুন বাংলার মাটিতে নামবে স্বস্তির বৃষ্টি। সূচনা হবে বর্ষার। আগামী ১১ ই জুন থেকেই একটানা ৪৮ ঘন্টা জুড়ে বাংলার মাটিতে বৃষ্টির দেখা মিলবে।

আরও পড়ুন-ইয়াসের দাপটে সবজি বাজারে আগুন। মাথায় হাত মধ্যবিত্তের।

তারপরেই নিম্নচাপটি ধাবিত হবে উত্তরবঙ্গের উদ্দেশ্যে।আবহাওয়া দপ্তর পূর্বাভাস দিয়েছে যে দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ু মধ্য আরব সাগরে আরো কিছুটা সামনের দিকে সরে এসেছে যার দরুন আজ থেকেই বাংলার মাটিতে হালকা বৃষ্টি শুরু হয়ে যেতে পারে এবং আগামী পাঁচ দিন বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টিপাতের প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। সেই সাথে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যাবে।ভারী বৃষ্টিপাতের দেখা মিলবে দার্জিলিং , জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার ,কোচবিহার, কালিম্পংয়ে।

আরও পড়ুন-করোনার আবহে বন্ধ অনুশীলন। খেলার প্রশিক্ষকরা খুলেছেন চায়ের দোকান।

এছাড়াও জানা গিয়েছে আজ দক্ষিণবঙ্গের বেশকিছু জেলায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। ‌ আজ বিকালের দিকে বৃষ্টি হবে দুই মেদিনীপুর সহ কলকাতা, হাওড়া, হুগলি , দুই ২৪ পরগনা , ঝাড়গ্রাম, নদিয়া, মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, পুরুলিয়া, দুই বর্ধমানে।