নিউজদেশপলিটিক্স

শরদ পাওয়ারের বাড়িতে সিপিএম, আপ, তৃণমূল সহ বৈঠকে ৮ দল।

নিজস্ব প্রতিবেদন: গত সোমবার দিল্লির বুকে ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের সাথে বৈঠক করেছেন শরদ পাওয়ার। গতকাল মঙ্গলবার শরদ পাওয়ারের বাড়িতে একটি বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিলো। সেখানে একে একে এসে উপস্থিত হয়েছেন বিরোধী দলের নেতারা। এসেছেন বিজেপি থেকে সদ্য তৃণমূলে আসা যশবন্ত সিন্‌হা।

গত ১১ ই জুন শরদ পাওয়ারের বাড়িতে বহুক্ষণ বৈঠক করেছেন পিকে। আবার গত সোমবার এবং গত মঙ্গলবারের বৈঠকে রাজ্য রাজনীতিতে যথেষ্ট জল্পনার সূত্রপাত হয়েছে ‌।গতকাল এই বৈঠকে বিরোধী দলের নেতাগুলোর মধ্যে ছিলেন কংগ্রেসের নেতা কপিল সিব্বল এবং বিবেক টঙ্কা। এছাড়াও ছিলেন তামিলনাড়ুর ডিএমকে নেতা ত্রিচুরি শিবা, সংগীতজগতের শিল্পী জাভেদ আখতার, ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ফারুক আব্দুল্লাহ, আম আদমি পার্টির নেতা, আরজেডি নেতারাও উপস্থিত ছিলেন এই বৈঠকে।

আরও পড়ুন-“শীতলকুচিতে গুলির পর ফাঁকা হয়ে গিয়েছিল বুথ, ভুলে গিয়েছিলেন জানাতে।”- স্বীকারোক্তি দিলেন প্রাক্তন এসপি

‌তবে কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল এই বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারবেন না বলে জানিয়েছিলেন। ‌ এই বৈঠক গুলিতে তৃতীয় এবং চতুর্থ ফ্রন্ট গড়ে বিজেপিকে রোখার পরিকল্পনা গৃহীত হয়েছে। কিন্তু এই প্রসঙ্গে ভোট কুশলী পিকে বলেছেন,”বর্তমান রাজনৈতিক আবহে বিজেপিকে ঠিকঠাক চ্যালেঞ্জ জানাতে সক্ষম হবে না তৃতীয় এবং চতুর্থ ফ্রন্ট। তৃতীয় ফ্রন্টের ধারণা হল অনেকটাই প্রাচীন টাইপের।”

আরও পড়ুন-“রেশন কার্ডের সাথে আধার লিঙ্ক হলে তবেই পাবেন দুয়ারে রেশন।”- ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর।

এছাড়াও এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সমাজবাদী পার্টির নেতা ঘনশ্যাম তিওয়ারি, সিপিএম নেতা নীলোৎপল বসু, আপ নেতা সুশীল গুপ্তা, ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা ওমর আবদুল্লা সহ আরো অনেকে।মাজিদ মেনন বলেছেন, “কংগ্রেসকে বাদ দিয়ে তৃতীয় ফ্রন্ট নিয়ে আলোচনা করার খবরটি একদমই ভ্রান্ত। সম মনোভাবের মানুষদের এই বৈঠকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কংগ্রেস নেতা মণীশ তিওয়ারি, শত্রুঘ্ন সিনহা, বিবেক তানহাদের ডাকা হয়েছিলো , কিন্তু তাঁরা কেউ আসেননি এই বৈঠকে।

Related Articles

Back to top button